সংবাদ শিরোনাম:
টাঙ্গাইলে ১৬ সরকারি প্রতিষ্ঠানে উড়ছে না জাতীয় পতাকা টাঙ্গাইলে ওয়ালটনের নন স্টপ মিলিয়নিয়ার অফার উপলক্ষে র‌্যালী কালিহাতীতে আওয়ামীলীগ-সিদ্দিকী পরিবার মুখোমুখি টাঙ্গাইলের তিন উপজেলায় মাঠ-ঘাট চষে বেড়াচ্ছেন প্রার্থীরা টাঙ্গাইলের কালিহাতীতে বজ্রপাতে দুই ভাইয়ের মৃত্যু রংপুরে শুরু হয়েছে শেখ হাসিনা অনুর্ধ্ব-১৫ টি টোয়েন্টি প্রমীলা ক্রিকেট টুর্নামেন্ট ঘাটাইল উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চশমা প্রতীক নিয়ে সাংবাদিক আতিক জনপ্রিয়তায় শীর্ষে ও জনসমর্থনে এগিয়ে ঘাটাইলে সেলাই মেশিন মার্কায় ভোট চাইলেন পৌর মেয়র আব্দুর রশীদ মিয়া টাঙ্গাইলে পুটিয়াজানী বাজারে দোকান ঘর ভাঙ্গচুরের অভিযোগ দেবরের বিরুদ্ধে সিরাজগঞ্জে ২১৬ কেজি গাঁজাসহ আটক ২ ; কাভার্ড ভ্যান জব্দ সাফল্য অর্জনেও ব্যতীক্রম নয় জমজ দুই বোন,  লাইবা ও লামিয়া দুজনেই পেলেন জিপিএ- ৫
চুরি হওয়ার ৫ মাস পর বাছুরসহ গাভী ফেরত দিল চোর

চুরি হওয়ার ৫ মাস পর বাছুরসহ গাভী ফেরত দিল চোর

আঃ হামিদ, মধুপুর: টাঙ্গাইলের মধুপুর উপজেলার কুড়ালিয়া ইউনিয়নের মহন গ্রামে প্রায় ৫ মাস আগে চুরি হয় কালো রঙের গর্ভবতী একটি গাভী। ৫ মাস পর হটাৎ করেই রোববার ১২ মার্চ ভোরে সেই গাভী ও বাছুর ফেরত দিয়ে যায় চোর। গাভীর মালিক ওই গ্রামের মৃত মসলিম উদ্দিনের ছেলে শাহজাহান আলী। তিনি নরসিংদী সদর ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সে চাকরি করেন।

এলাকাবাসী জানায়, রোববার ভোরে বাড়ির পেছনে একটি গাছের সাথে কালো রঙের ওই গাভী ও তার দুই মাস বয়সি বাছুর বাঁধা অবস্থায় দেখতে পায়। তারা মনে করছেন চোরের মনে সুমতি আসায় বা রহস্যজনক কোনো কারণে চোর গাভী ও বাছুর ফিরিয়ে দিয়ে গেছেন।

পরিবার সূত্রে জানা যায়, প্রায় ৫ মাস আগে শুক্রবার দুপুরে বাড়ির পাশে বেঁধে রাখা ক্রস জাতের গাভীটি চুরি হয়ে যায়। চুরি হওয়ার সময় গাভীটি ৫ মাসের গর্ভবতী ছিল। প্রায় দেড় লাখ টাকা মূল্যের ওই গাভী হারিয়ে পরিবারটি হতাশার মধ্যে পড়ে। পরে স্বজনরা মিলে বাজার ও গ্রামে গ্রামে খোঁজ করেন গাভীটির। কিন্তু গাভীটির কোন সন্ধান পায়নি মালিক। তবে চুরি যাওয়ার ৫ মাস পর বাছুরসহ গাভী ফিরে পাওয়ার এমন অলৌকিক ঘটনায় ওই পরিবার এবং আশপাশের লোকজন হতবাক। এ ঘটনায় আশে পাশের উৎসক জনতা ওই গাভী ও বাছুর দেখতে ভীড় জমিয়েছে শাহজাহান আলীর বাড়িতে।

 

খবরটি শেয়ার করুন..

Comments are closed.




© সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত । এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি ।
নির্মান ও ডিজাইন: সুশান্ত কুমার মোবাইল: 01748962840