সংবাদ শিরোনাম:
ধনবাড়ীতে প্রাইভেটকার চাপায় নিহত ১ আহত ৪ ভূঞাপুরে ৩৭টি পূজা মন্ডপে পৌর মেয়রের আর্থিক অনুদান টাঙ্গাইল শহর আওয়ামী লীগের সভাপতি আলমগীর সম্পাদক রৌফ সাফ জয়ী কৃষ্ণা রানী সরকার ও কোচ গোলাম রাব্বানী ছোটনকে সংবর্ধনা দিয়েছে টাঙ্গাইল জেলা ক্রীড়া সংস্থা ভাসানীর মাজারে ন্যাপ ভাসানীর পুষ্পস্তবক অর্পণ গোপালপুরে কৃষ্ণাকে পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির সংবর্ধনা নাগরপুরে এবারের দুর্গোৎসব হবে নিশ্ছিদ্র নিরাপত্তায় বজ্রপাত প্রতিরোধে বাতিঘর আদর্শ পাঠাগারের উদ্যোগে তালবীজ বপন বিএনপির মিথ্যাচার করে দেশে একটি অস্থিতিশীল পরিস্থিতি তৈরি করছে -কৃষিমন্ত্রী হিফজুল কোরআন প্রতিযোগিতায় তৃতীয় স্থান অর্জনকারী তাকরীমকে সংবর্ধনা
টাঙ্গাইল জেলা পূজা উদযাপন কমিটির অপসারণের দাবিতে সংবাদ সম্মেলন

টাঙ্গাইল জেলা পূজা উদযাপন কমিটির অপসারণের দাবিতে সংবাদ সম্মেলন

প্রতিদিন প্রতিবেদক: টাঙ্গাইলের মির্জাপুর প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে বাংলাদেশ পুজা উদযাপন পরিষদ টাঙ্গইল জেলা শাখার অপসারণের দাবি জানানো হয়েছে। মির্জাপুরের আহবায়ক কমিটির (বিলোপ্তকৃত) নেতৃবৃন্দ সোমবার প্রেসক্লাব মিলনায়তনে সংবাদ সম্মেলনে এই অপসারণের দাবি জানান। জেলা কমিটির নেতৃবৃন্দের বিরুদ্ধে মির্জাপুরে হিন্দু সম্প্রদায়ের মধ্যে বিবেধ সৃষ্টিরও অভিযোগ করা হয়।

মির্জাপুর প্রেসক্লাব মিলনায়তেনে অনুষ্ঠিত সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন ওই কমিটির আহবায়ক মির্জাপুর উপজেলা পরিষদের সাবেক ভাইস চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা সরকার হিতেশ চন্দ্র পুলক।

এ সময় কমিটির সদস্য সচিব বিপ্লব কুমার সাহা, স্বপন কুমার মন্ডল ও প্রেসক্লাবের সভাপতি নিরঞ্জন পাল বক্তৃতা করেন। এছাড়া সদস্য জতিন্দ্র নাথ বিশ্বাস, পিযুষ কান্তি নন্দ ও লতিফপুর ইউনিয়ন পূজা উদযাপন কমিটির সভাপতি নরেশ চন্দ্র রাজবংশী প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

লিখিত বক্তব্যে বলা হয়, বাংলাদেশ পূজা উদযাপন পরিষদ টাঙ্গাইল জেলা শাখার সভাপতি আনন্দ মোহন দে ও সাধারণ সম্পাদক প্রদীপ কুমার গুন তাদের স্বাক্ষরিত পত্রের মাধ্যমে গত ২২ আগষ্ট সরকার হিতেশ চন্দ্র পুলককে আহবায়ক ও বিপ্লব কুমার সাহাকে সদস্য সচিব করে ২৫ সদস্যের আহবায়ক কমিটির অনুমোদন দেন। অনুমোদনের পর ইউনিয়ন কমিটির সম্মেলনসহ যাবতীয় কার্যক্রম পরিচালনা করতে থাকে আহবায়ক কমিটির। কিন্তু এক মাস পার হওয়ার পূর্বেই রহস্যজনক কারণে টাঙ্গাইল জেলা কমিটি ওই কমিটি বিলুপ্ত করেন গত ১৭ সেপ্টেম্বর সুরঞ্জন শেঠ তাপসকে আহবায়ক ও সুশীল সরকারকে সদস্য সচিব করে ২৫ সদস্য বিশিষ্ট আরেকটি আহবায়ক কমিটি অনুমোদন দেন। এটা মির্জাপুরে হিন্দু সম্প্রদায়ের তিন লাখ মানুষের মধ্যে দ্বিধাবিভক্ত এবং বিবেধ সৃষ্টির শামিল বলে বক্তব্যে উল্লেখ করেন। জেলা কমিটির এহেন অনৈতিক ও পূজা উদযাপন পরিষদের গঠনতন্ত্র বিরোধী কার্যক্রমের জন্য কেন্দ্রীয় কমিটির কাছে জেলা কমিটির অপসারন দাবি করেন।

বাংলাদেশ পুজা উদযাপন পরিষদ টাঙ্গইল জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক প্রদীপ কুমার গুনের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, উপজেলার মহেড়া, বহুরিয়া ও লতিফপুর ইউনিয়ন কমিটির মেয়াদ থাকার পরও সম্মেলনের মাধ্যমে নতুন কমিটি গঠন করেছেন। এ কাজটি গঠনতন্ত্র বিরোধী। এতে নিজেদের মধ্যে বিবেধ তৈরি করেছে। এজন্য ওই কমিটি বিলুপ্ত করে নতুন আহবায়ক কমিটি অনেুমোদন দেয়া হয়েছে।

খবরটি শেয়ার করুন..

Comments are closed.




© সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত । এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি ।
নির্মান ও ডিজাইন: সুশান্ত কুমার মোবাইল: 01748962840