টাঙ্গাইল প্রতিটি কেন্দ্রে পৌছে গেছে নির্বাচনী সরঞ্জাম।।অপেক্ষা ভোটের

টাঙ্গাইল প্রতিটি কেন্দ্রে পৌছে গেছে নির্বাচনী সরঞ্জাম।।অপেক্ষা ভোটের

প্রতিদিন প্রতিবেদক : সকল জল্পনা-কল্পনার অবসান ঘটবে রোববার। চতুর্থ ধাপে উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের সকল প্রস্তুতি শেষ। এখন শুধু ভোটাদের হাতে প্রার্থী বাচাইয়ের ক্ষমতা রয়েছে।

ইতিমধ্যে শনিবার রাতে জেলার ১২টি উপজেলার ১০০৬টি কেন্দ্রের জন্য নির্বাচনী সকল সরঞ্জাম পৌছে দেয়া হয়েছে।

শনিবার (৩০ মার্চ) উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে কঠোর নিরাপত্তার মধ্য দিয়ে প্রতিটি কেন্দ্রের প্রিজাইডিং অফিসারের হাতে নির্বাচনী সংরঞ্জাম তোলে দেওয়া হয়।

নির্বাচন উপলক্ষে ১২টি উপজেলায় ৩৭ প্লাটুন বিজিবি, পুলিশের ২০৩টি স্টাইকিং ফোর্স, ৫৬জন নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট নিয়োগ দেয়া হয়েছে।

কঠোর নিরাপত্তার ব্যবস্থা করেছেন জেলা আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর উর্দ্ধতন কর্মকর্তারা।

বিশৃঙ্খলা এড়াতে শনিবার সন্ধ্যা থেকেই নির্বাচনী এলাকার গুরুত্ব পূর্ণ স্থানে বিজিবি নিয়ে ভ্রাম্যমান মোবাইল কোট বসিয়ে তল্লাশী চালানো হচ্ছে।

একই সাথে সকল প্রকার নিশিদ্ধ যানবাহন গুলো আটক করছেন মোবাইল কোট।

এছাড়াও রয়েছে র‌্যাব, পুলিশ ও ডিবির টহল বাহিনী।

জেলা নির্বাচন অফিস সূত্রে জানা যায়, রোববার (৩১ মার্চ) চতুর্থ ধাপে টাঙ্গাইলের ১২টি উপজেলায় নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। সকাল ৮টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত এক টানা ভোট গ্রহন চলবে।

এ জন্য শনিবার নির্বাচনী এলাকার ব্যালট পেপার, ব্যালট বাক্স, ভোটার তালিকা, সিলমোহর, অমোচনীয় কালীসহ যাবতীয় নির্বাচনী সরঞ্জাম ভোট কেন্দ্রের প্রিজাইডিং কর্মকর্তার কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

পরে আইন শৃংখলা বাহিনীর সহায়তায় কঠোর নিরাপত্তার মধ্য দিয়ে এসব সরঞ্জাম ভোট কেন্দ্রে নিয়ে যাওয়া হয়।

১২ উপজেলায় চেয়ারম্যান পদে ৪১জন, ভাইস চেয়ারম্যান পদে ৬৫জন এবং সংরক্ষিত মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে ৫৩জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

এরমধ্যে গোপালপুর, ধনবাড়ী ও মধুপুর উপজেলায় কোন প্রতিদ্বন্দ্বি না থাকায় চেয়ারম্যান প্রার্থীরা বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়েছে।

১২ উপজেলায় মোট ভোটার রয়েছেন ২৭লাখ ৭৯হাজার ৬৯৭ জন। এরমধ্যে পুরুষ ভোটার ১৩লাখ ৭৫হাজার ৯৫৫ জন এবং মহিলা ভোটার ১৪লাখ ৩হাজার ৭৪২ জন। মোট ভোট কেন্দ্র ১০০৬টি এবং ভোট কক্ষ ৬৭০৪টি।

টাঙ্গাইল জেলা নির্বাচন কমিশনার এ.এইচ.এম কামরুল হাসান জানান, ভোট গ্রহনের সকল প্রস্তুতি সম্পন্ন করা হয়েছে। সুষ্ঠভাবে ভোট গ্রহনের জন্য ১২টি উপজেলায় ৩৭ প্লাটুন বিজিবি, পুলিশের ২০৩টি স্টাইকিং ফোর্স, ৫৬জন নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট নিয়োগ করা হয়েছে ও প্রতি উপজেলায় একটি করে র‌্যাবের টহল টিম দায়িত্ব পালন করবে বলে জানান তিনি ।

খবরটি শেয়ার করুন..

Comments are closed.




© সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত । এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি ।
নির্মান ও ডিজাইন: সুশান্ত কুমার মোবাইল: 01748962840