সংবাদ শিরোনাম:
তথ্য গোপন করে সরকারি চাকুরি নেওয়ার অভিযোগ

তথ্য গোপন করে সরকারি চাকুরি নেওয়ার অভিযোগ

প্রতিদিন প্রতিবেদক : টাঙ্গাইলের ভূঞাপুর উপজেলার শিয়ালকোল খাদ্য গুদামে কর্মরত বীর মুক্তিযোদ্ধা মো. মকবুল হোসেনের বিরুদ্ধে বয়স গোপন করে সরকারি চাকুরি করার অভিযোগ ওঠেছে। তিনি জামালপুর জেলার সরিষাবাড়ী উপজেলার পিংনা দক্ষিণপাড়া গ্রামের মৃত আ. আজিজের ছেলে। এ বিষয়ে প্রতিকার চেয়ে পিংনা ইউনিয়ন মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডের সহকারী কমান্ডার বীর মুক্তিযোদ্ধা রফিকুল ইসলাম দুর্নীতি দমন কমিশনে লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন।

অভিযোগে প্রকাশ, পিংনা দক্ষিণপাড়া গ্রামের বীর মুক্তিযোদ্ধা মো. মকবুল হোসেন ১৯৫৩ সালের ২৫ নভেম্বর জন্মগ্রহন করেন। মহান মুক্তিযুদ্ধে তিনি বীরত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেন। ১৯৭৪ সালের ১৮ আগস্ট তিনি পুলিশ বাহিনীতে যোগদান করেন। নৈতিকস্খলন জনিত কারণে তিনি পুলিশ বাহিনী থেকে চাকুরিচ্যূত হন। বীর মুক্তিযোদ্ধা হওয়ায় তার ছেলে-মেয়েরা ‘মুক্তিযোদ্ধা’ কোটায় চাকুরি করছেন। তিনিও মুক্তিযোদ্ধা ভাতা সহ সকল সরকারি সুযোগ-সুবিধা ভোগ করছেন। পরে মো. মকবুল হোসেন নিজের বয়স ১০ বছর কমিয়ে জন্ম তারিখ ২৫ নভেম্বর ১৯৬৩ দেখিয়ে ১৯৯৬ সালের ২৭ মার্চ খাদ্য অধিদপ্তরে নিরাপত্তা প্রহরী হিসেবে চাকুরিতে যোগদান করেন। বর্তমানে তিনি ভূঞাপুর উপজেলা খাদ্য গুদামে দায়িত্ব পালন করছেন। তিনি কর্মস্থলে অনুপস্থিত থেকে গ্রামের বাড়ি পিংনা এলাকায় নানা অপকর্মে জড়িয়ে পরেছেন।

এ বিষয়ে সরেজমিন তদন্ত করে জন্ম তারিখ সংক্রান্ত জটিলতার অবসান এবং দ্বৈত সুবিধা প্রত্যাহারে বিধি মোতাবেক ব্যবস্থা গ্রহনের দাবি জানিয়েছেন অভিযোগকারী বীর মুক্তিযোদ্ধা রফিকুল ইসলাম।

স্থানীয় বীর মুক্তিযোদ্ধা আ. হাকিম বীর প্রতীক, সাবেক চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা কেএম ছানোয়ার হোসেন, বীর মুক্তিযোদ্ধা আ. ছামাদ, মোজাম্মেল হক সরকার সহ অনেকেই জানান, বীর মুক্তিযোদ্ধা মো. মকবুল হোসেন এলাকায় নানা রকমের অপরাধমূলক কর্মকান্ডের সঙ্গে জড়িত। একদিকে বীর মুক্তিযোদ্ধা অন্যদিকে সরকারি চাকুরি করার কারণে এলাকায় তিনি দাপট দেখিয়ে সাধারণের সাথে নানা অন্যায়-অপরাধ করে থাকেন।

অভিযোগকারী বীর মুক্তিযোদ্ধা রফিকুল ইসলাম জানান, একজন বীর মুক্তিযোদ্ধা হয়ে মো. মকবুল হোসেন বয়স গোপন করে চাকুরি ও মুক্তিযোদ্ধা হিসেবে দ্বৈত সরকারি সুযোগ-সুবিধা ভোগ করে অনৈতিক ও গর্হিত অপরাধ করেছেন। এ বিষয়ে তিনি জামালপুরের আদালতে একটি মামলাও দায়ের করেছেন।

এ বিষয়ে বীর মুক্তিযোদ্ধা মো. মকবুল হোসেন জানান, তার জন্ম তারিখ ২৫ নভেম্বর ১৯৬৩। ভুলক্রমে মুক্তিযোদ্ধা হিসেবে তার জন্ম সাল ১৯৫৩ লেখা হয়েছে। ১৯৬৩ সালে জন্ম হলে মাত্র ৭ বছর বয়সে তিনি মুক্তিযুদ্ধে অংশ নিয়েছিলেন কি-না এমন প্রশ্নের উত্তরে তিনি কোন সদুত্তর দিতে পারেননি।

দুদকের সমন্বিত জেলা কার্যালয়ের(টাঙ্গাইল) উপ-পরিচালক মো. মোস্তাফিজুর রহমান জানান, অভিযোগ পেলেও বিষয়টি মাসিক সভায় তদন্তের জন্য অনুমোদন দেওয়া হয়নি। ফেব্রুয়ারি মাসে তদন্তের অনুমোদন পেলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

খবরটি শেয়ার করুন..

Comments are closed.




© সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত । এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি ।
নির্মান ও ডিজাইন: সুশান্ত কুমার মোবাইল: 01748962840