দেলদুয়ারে অবৈধ মাটি বিক্রির মহোৎসব চলছে

দেলদুয়ারে অবৈধ মাটি বিক্রির মহোৎসব চলছে

প্রতিদিন প্রতিবেদক দেলদুয়ার : দেলদুয়ার উপজেলার আটিয়া ইউনিয়নের এলেংজানী নদীর উপর গড়াসিন এলাকায় চলছে অবৈধ মাটি উত্তোলনের মহোৎসব।

স্থানীয় প্রভাবশালী ব্যবসায়ী চক্রের আব্দুল মান্নান, ডলার, রিপন ও শুকুর এর নেতৃত্বে তিন চারটি ভেকু বসিয়ে প্রকাশ্যে বালু উত্তোলন করা হচ্ছে।

প্রতি বছর নদীতে এভাবে বালু উত্তোলনের ফলে বন্যায় অসংখ্য ঘরবাড়ি, বসতভিটা, নদীগর্ভে বিলীন হয়ে যায়। ঝুকিপূর্ন হয়ে পড়েছে গ্রামের মসজিদ সহ অসংখ্য ফসলি জমি, রাস্তাঘাট, ব্রিজ, কালভার্ট ও ভিটেবাড়ী।

গ্রামবাসীর মধ্যে বন্যায় ভাঙ্গনের আশঙ্কা বিরাজ করছে। নদী গর্ভে বিলীন হওয়া ক্ষতিগ্রস্থ এলাকার সহজ সরল জনসাধারন এ নিয়ে দিন রাত আতঙ্কিত থাকলেও প্রভাবশালী মহলের ইন্দনে বালু দস্যুদের তৎপরতা থামছেই না।

প্রকাশ্যে দিন রাত অবৈধ বালু উত্তোলন করলেও স্থানীয় প্রশাসন রহস্যজনক ভূমিকায় রয়েছেন।

এলাকাবাসীর অভিযোগ, স্থানীয় পুলিশ প্রশাসন মোটা অংকের অর্থের বিনিময়ে বালু ব্যবসায়ীদের এসব অনৈতিক কাজে পরোক্ষ সহযোগিতা দিয়ে যাচ্ছে।

এ কারণে স্থানীয় নিরীহ জনগণ তাদের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করে সুফল পায় না।

গড়াসিন এলাকার মাটি ব্যবসায়ী আব্দুল মান্নান জানান, নদী তীরবর্তী ব্যক্তি মালিকানাধীন উচু ভূমি ক্রয় করে উপজেলার বিভিন্ন স্থানে আমরা মাটি বিক্রী করে থাকি। এতে আইনগত কোন বাধা নেই বলে আমি মনে করি।

দেলদুয়ার থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) এ কে এম সাইদুল হক ভূইয়া জানান, অবৈধ মাটি ব্যবসার সাথে আমাদের কোন সংশ্লিষ্টতা নেই। ইতিপূর্বে আমরা তাদের ধরে এনেছিলাম। তবে কি কারণে থানা থেকে তাদের ছেড়ে দেয়া হয় এ বিষয়ে তিনি কোন মন্তব্য করেননি।

দেলদুয়ার উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোছাঃ নাদিরা আক্তার জানান, উপজেলা নির্বাচনের কারণে পুলিশ সহ অন্যান্য জনবল স্বল্পতার কারণে আমরা এসব বিষয়ে ব্যবস্থা গ্রহণ করতে পারিনি। তবে অতিদ্রুত এসব অবৈধ মাটি ব্যবসায়ী ও রোড পারমিট বিহীন মাহিন্দ্র ট্রাক্টর মালিকদের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করব।

খবরটি শেয়ার করুন..

Comments are closed.




© সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত । এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি ।
নির্মান ও ডিজাইন: সুশান্ত কুমার মোবাইল: 01748962840