দেলদুয়ারে আনারস প্রতিকের অফিসে নৌকা কর্মীদের হামলা-ভাংচুর

দেলদুয়ারে আনারস প্রতিকের অফিসে নৌকা কর্মীদের হামলা-ভাংচুর

প্রতিদিন প্রতিবেদক দেলদুয়ার : দেলদুয়ার উপজেলা পরিষদ নির্বোচনে আওয়ামীলীগ বিদ্রোহী স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সাবেক সহ-সভাপতি ও জেলা আওয়ামী লীগের উপ-প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক প্রকৌশলী মাহমুদুল হাসান মারুফ-এর আনারস প্রতিকের বেশ কয়েকটি নির্বাচনী অফিসে হামলা চালিয়ে ভাংচুর ও কর্মীদের মারপিট করে জীননাশের হুমকী দিচ্ছেন নৌকা সমর্থিত উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক শিবলী সাদিক সহ তার কর্মীরা।

আহত আনারস প্রতিকের কর্মীদের স্থানীয় উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।

ভাংচুরকৃত অফিস পুরদর্শন করেছেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও উপজেলা নির্বাচন অফিসার সহ প্রশাসনিক কর্মকর্তারা।

শুক্রবার সন্ধ্যায় উপজেলার ফাজিলহাটী ইউনিয়নের টুকচানপুর গ্রামের আনারস প্রতিকের অফিসে হামলা চালায় নৌকার সমর্থকরা।

সরোজমিনে জানা যায়, সন্ধ্যায় উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক শিবলী সাদিক, ফাজিলহাটী ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি মো: পাশান ও আওয়ামীলীগ নেতা জাহাঙ্গীর ও এস প্রতাপ মুকুল লতিফের নেতৃত্বে নৌকা সমর্থিত কর্মীরা টুকচানপুর গ্রামে গিয়ে আনারস প্রতিকের অফিসে হামলা চালিয়ে অফিস ভাংচুর ও পোষ্টার-লিফলেট ছিরে ফেলে দেয়া হয়।

এসময় বাধা দেওয়ায় আনারস অফিসে থাকা কর্মীদের এলোপাথাল মারপিট করেন।

একই সাথে পাশ্ববর্তি গ্রামের অন্যান্য অফিসগুলোতেও হামলা চালিয়ে ভাংচুর ও কর্মীদের মারপিট করেন তারা।

খবর পেয়ে আনারস প্রতিকের প্রার্থী ঘটনাস্থলে গিয়ে সরোজমিন ভাংচুর ও হামলায় আহত কর্মীদের দেখে উপজেলা নির্বাচন অফিসার ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এবং পুলিশ প্রশাসনকে অবহিত করেন।

পরে প্রশাসনিক কর্মকর্তারা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।

আনারস প্রতিকের স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী মাহমুদুল হাসান মারুফ হামলা ও ভাংচুরের তীব্র নিন্দা ও ক্ষোভ প্রকাশ করে জানান,
উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক শিবলী সাদিক নির্বাচনের শুরুতেই নৌকার কর্মী-সমর্থকদের নিয়ে আমার কর্মী-সমর্থক ও সরঞ্জাম সহ অফিস ভাংচুর ও কর্মী-সমর্থকদের জীনবনাশের হুমকী দিয়ে আসছে। তার এ কার্যক্রম অব্যাহত রয়েছে।

এ ব্যাপারে আমি একাধিকবার উপজেলা নির্বাচন অফিস সহ উপজেলা প্রশাসনকে জানিয়েছি। তিনি শুক্রবার সন্ধ্যা থেকে রাত পর্যন্ত আনারসের বেশ কয়েকটি নির্বাচনী অফিসে হামলা চালিয়ে ভাংচুর করেছে এবং অফিসের থাকা কর্মী-সমর্থকদের মারপিট করে লিফলেট ও পোষ্টার ছিরে ফেলেছে।

আমি ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে আহত কর্মীদের চিকিৎসার জন্য উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভতি করিয়েছি এবং অফিসে হামলা ও ভাংচুরের বিষয়ে উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা সহ উপজেলা প্রশাসনকে অবহিত করেছি।

তিনি আরো জানান উপজেলাবাসী আমার সাথে রয়েছে। তারা আনারস প্রতিকের প্রচার-প্রচারনায় গণজোয়ার তোলেছে। ভোটাররা আমাকে নিজের আত্নীয়, ছেলে ও সন্তান মনে করে আনারসের প্রচার চালাচ্ছেন।

সে কারণেই নৌকার প্রার্থী মরিয়া হয়ে আমার প্রচারে বাধা এবং সরঞ্জাম লুটপাট ও আমার কর্মীদের মারপিট করছেন। সকল সন্ত্রাসী কার্যক্রম উপেক্ষা করে আগামী উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে তিনি আনারস প্রতিকে শতভাগ আশাবাদি বলে জানান।

গণজোয়ার থামাতে মরিয়া হয়ে কর্মী-সমর্থকদের উপর হামলা চালাচ্ছে আওয়ামীলীগ মনোনীত নৌকার পার্থীর সন্ত্রাসীরা।

খবরটি শেয়ার করুন..

Comments are closed.




© সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত । এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি ।
নির্মান ও ডিজাইন: সুশান্ত কুমার মোবাইল: 01748962840