দেলদুয়ারে রাস্তা নির্মাণে নিম্নমানের সামগ্রী

দেলদুয়ারে রাস্তা নির্মাণে নিম্নমানের সামগ্রী

প্রতিদিন প্রতিবেদক দেলদুয়ার : দেলদুয়ারে রাস্তা নির্মাণে নিম্নমানের নির্মাণ সামগ্রী ব্যবহারের করছেন উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তাসহ সংশ্লিষ্ট ঠিকাদারা। এ নিয়ে এলাকাবাসীর মাঝে চরম ক্ষোভ বিরাজ করছে। দ্রুত রাস্তা নির্মাণকারী ঠিাকাদার সহ সকলের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণের দাবী স্থানীয়দের।

জানা যায়, বার্ষিক উন্নয়ন কর্মসূচির আওতায় ২০১৯-২০ অর্থ বছরের গ্রামীণ মাটির রাস্তা সমূহ টেকসই করার লক্ষে হেরিং বোন বন্ড দ্বিতীয় পর্যায়ের প্রকল্পের গৃহিত রাস্তা নির্মাণের কাজ পান মানিকগঞ্জ জেলার দৌলতপুর এলাকার মেসার্স শান্তি এন্টারপ্রাইজ।

যার প্রাক্কলিত মূল্য ৫৪ লাখ ৯৭ হাজার টাকা। কার্যাদেশ পেয়ে উপজেলার সদর ইউনিয়নের নলুয়া গ্রামের আহম্মদের বাড়ি হতে দেলদুয়ার-টাঙ্গাইল পাকা সড়ক পর্যন্ত এক হাজার মিটার গ্রামীণ কাচা রাস্তা ইট দ্বারা এইচবিবি করণের কাজ শুরু করেন সংশ্লিষ্ট ঠিকাদার।

কাজের শুরুতেই নিম্নমানের সামগ্রী ব্যবহারের অভিযোগ উঠে। কিন্তু এলাকাবাসীর অভিযোগকে তোয়াক্কা না করে প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা রাশেদুল হাসানকে ম্যানেজ করে নির্মাণ কাজ চালিয়ে যান ওই ঠিকাদার প্রতিষ্ঠান। সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায় রাস্তায় বিছানো নিম্নমানের ইট তড়িঘড়ি করে মাটি দিয়ে ঢেকে ফেলা হচ্ছে।

এলাকাবাসীর অভিযোগের প্রেক্ষিতে উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ইঞ্জিনিয়ার মাহমুদুল হাসান মারুফ রাস্তা পরিদর্শনে যান। সেখানে নির্মান কাজে ব্যবহৃত পণ্য সামগ্রী অত্যান্ত নিম্নমানের দেখে অসন্তোষ প্রকাশ করেন।

এ প্রসঙ্গে জানতে চাইলে তিনি বলেন, এলাকাবাসীর অভিযোগে রাস্তা পরিদর্শনে গিয়ে ব্যবহৃত ইট নিম্নমানের দেখে তার নমুনা সংগ্রহ করি এবং প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তাকে অবহিত করি।

অভিযোগ প্রসঙ্গে জানতে চাইলে উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা রাশেদুল হাসান জানান, রাস্তা নির্মাণে দ্বিতীয় শ্রেণির ইট ব্যবহারের কোনো সুযোগ নেই। কিছু ইট নিয়ে এলাকাবাসীর অভিযোগ ছিলো। সংশ্লিষ্ট ঠিকাদারকে বলে তা সরিয়ে নেয়া হয়েছে।

খবরটি শেয়ার করুন..

Comments are closed.




© সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত । এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি ।
নির্মান ও ডিজাইন: সুশান্ত কুমার মোবাইল: 01748962840