সংবাদ শিরোনাম:
রংপুরে শুরু হয়েছে শেখ হাসিনা অনুর্ধ্ব-১৫ টি টোয়েন্টি প্রমীলা ক্রিকেট টুর্নামেন্ট ঘাটাইল উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চশমা প্রতীক নিয়ে সাংবাদিক আতিক জনপ্রিয়তায় শীর্ষে ও জনসমর্থনে এগিয়ে ঘাটাইলে সেলাই মেশিন মার্কায় ভোট চাইলেন পৌর মেয়র আব্দুর রশীদ মিয়া টাঙ্গাইলে পুটিয়াজানী বাজারে দোকান ঘর ভাঙ্গচুরের অভিযোগ দেবরের বিরুদ্ধে সিরাজগঞ্জে ২১৬ কেজি গাঁজাসহ আটক ২ ; কাভার্ড ভ্যান জব্দ সাফল্য অর্জনেও ব্যতীক্রম নয় জমজ দুই বোন,  লাইবা ও লামিয়া দুজনেই পেলেন জিপিএ- ৫ নাগরপুরে মুক্তিযোদ্ধা পরিবার রাজপথে, প্রতিবাদ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত এক স্কুল থেকে এসএসসিতে জিপিএ-৫ পেল জমজ দুই বোন মির্জাপুরে ধান চাল সংগ্রহ কার্যক্রমের উদ্বোধন টাঙ্গাইলে মাদ্রাসা ও কারিগরি প্রতিষ্ঠানের গার্ল-ইন- স্কাউটের সদস্যদের ডে ক্যাম্প
বাসাইল ঝিনাই নদীতে অবৈধভাবে বালু উত্তোলনের দায়ে দন্ড ও জরিমানা

বাসাইল ঝিনাই নদীতে অবৈধভাবে বালু উত্তোলনের দায়ে দন্ড ও জরিমানা

প্রতিদিন প্রতিবেদকঃ বাসাইলের ঝিনাই নদীতে অবৈধ বালু উত্তোলনকারীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে উপজেলা প্রশাসন নিরব ভূমিকা পালন করলেও থেমে থাকেননি জেলা প্রশাসন। টাঙ্গাইলের জনবান্ধব জেলা প্রশাসকের নির্দেশে ভ্রাম্যমান আদালত অভিযান চালিয়ে ঘটনাস্থল থেকে ছয় জন অবৈধ বালু ব্যবসায়ীকের আটক করেন।

এসময় দুটি এক্সকেভেটর ধ্বংস ও দুই ব্যবসায়ীকে বিনাশ্রম কারাদন্ড সহ আর্থিক জরিমানা করা হয়। এ দন্ড প্রদান করেন ভ্রাম্যমান আদালতের বিচারক টাঙ্গাইলের এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট মো: রোকনুজ্জামান।

রবিবার (২ ফেব্রুয়ারী) দুপুরে উপজেলার নথখোলা ও কাঞ্চনপুর (কাজিরা পাড়া) এলাকায় অভিযান চালায় ভ্রামমান আদালত। এ অভিযানে জেলা প্রশাসক ও ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনাকারীদের সাধুবাদ ও ধন্যবাদ জানিয়েছেন উপজেলাবাসী।

এ অভিযানের কারণে কিছুটা হলেও রক্ষা পেল নদী সংলগ্ন জমি, ঘর-বাড়ী ও ব্রীজ সহ সাধারণ খেটে খাওয়া মানুষ। এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট মো: রোকনুজ্জামান জানান, বাসাইল উপজেলার কাশিল ও কাঞ্চলপুর ইউনিয়নের ঝিনাই নদীতে অবৈধভাবে বালু উত্তোলন করছিলো স্থানীয় কিছু প্রভাবশালী ব্যক্তি এমন অভিযোগের ভিত্তিতে আমরা একটি ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করি। এসময় অবৈধভাবে বালু উত্তোলনকারীদের আটক করা হয়।

আটককৃত দুই বালু ব্যবসায়ীকে আর্থিক জরিমানা ও অপর দুই জনকে বিভিন্ন মেয়াদে সাজা দেওয়া হয়েছে। জেলার যে কোন নদী থেকে অবৈধভাবে যারা বালু উত্তোলন করবে তাদের বিরুদ্ধে এ অভিযান অব্যাহত থাকবে বলে তিনি জানান।

এ অভিযানে টাঙ্গাইল র‌্যাব-১২ সিপিসি-৩ এর সদস্য ও জেলা গোয়েন্দা পুলিশের সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন। স্থানীয়রা জানান, উপজেলার প্রশাসনকে ম্যানেজ করে দীর্ঘ দিন যাবত বাসাইল উপজেলার ঝিনাই নদীর নথখোলা ও কাঞ্চনপুর কাজিরা পাড়া এলাকা থেকে অবৈধ ভাবে এক্সকেভেটর দিয়ে বালু কেটে বিক্রি করে আসছিল প্রভাবশালী মহল। এ নিয়ে একাদিক বার এলাকাবাসী প্রশাসনকে বার বার অবহিত করেন। কিন্তু উপজেলা প্রশাসন এতে কোন প্রকার কর্ণপাত করেননি।

পরে বিষয়টি জনপ্রিয় অনলাইন “টাঙ্গাইল প্রতিদিন”-এ নিয়ে একটি প্রতিবেদন প্রকাশ ও প্রচার হওয়ায় জেলা প্রশাসনের নজরে আসে। সংবাদ প্রকাশের মাত্র কয়েক ঘন্টা পর টাঙ্গাইলের এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট মো: রোকনুজ্জামান-এর নেতৃত্বে ভ্রামমান আদালত অভিযান চালায়।

এসময় নথখোলা এলাকায় দুটি এক্সকেভেটর ধ্বংস করে। একই সাথে অবৈধ বালু মহল থেকে জড়িত সন্দেহে ৬ জনকে আটক করা হয়। আটককৃতদের মধ্যে বাসাইল বিল পাড়া গ্রামের হাবিবুর রহমানের ছেলে জাহিদুর রহমানকে দুই মাসের বিনাশ্রম কারাদন্ড ও দুই লাখ টাকা জরিমানা এবং দেলদুয়ার উপজেলার আছান মিয়ার ছেলে মো. রাজু মিয়াকে তিন মাস বিনাশ্রম কারাদন্ড ও তিন লাখ টাকা জরিমানা করা হয়।

আটককৃত অপর বালু ব্যবসায়ী উপজেলার বাংড়া গ্রামের মো. ছবুর মিয়া, সোনালিয়া গ্রামের আমিনুর রহমান, পিচুরী গ্রামের নুরু মিয়া ও করটিয়া এলাকার স্বপন মিয়াকে মোট দুই লাখ টাকা জরিমান করা হয়। জরিমানার টাকা সরকারি কোষাগারে জমা করা হয়েছে।

খবরটি শেয়ার করুন..

Comments are closed.




© সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত । এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি ।
নির্মান ও ডিজাইন: সুশান্ত কুমার মোবাইল: 01748962840