ভূঞাপুরে প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে যৌন হয়রানীর অভিযোগ

ভূঞাপুরে প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে যৌন হয়রানীর অভিযোগ

প্রতিদিন প্রতিবেদক ভূঞাপুর : ভূঞাপুরে আব্দুল খালেক নামের সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে একাধিক যৌন হয়রানীর অভিযোগ উঠেছে। সাম্প্রতি ৪র্থ শ্রেণীর এক ছাত্রীকে জোর পূর্বক জরিয়ে ধরে আপত্তিকর স্থানে হাত দেয়ার অভিযোগে থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে।

একই কারণে তাকে অন্য বিদ্যালয় থেকে এখানে বদলী করা হয়।

বিষয়টি স্থানীয় মাতাব্বর ও স্কুল ম্যানেজিং কমিটিকে জানানো হলেও কোন ব্যাবস্থা গ্রহণ করেননি।

অভিযুক্ত ওই শিক্ষক উপজেলার অর্জুনা ইউনিয়নের বাসুদেবকোল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে কর্মরত। সে উপজেলার ফলদা (চন্ডিপুর) গ্রামের বাসিন্দা।

ছাত্রীর মা ও ভাবী জানান, উপজেলার প্রত্যন্ত চরাঞ্চল অর্জুনা ইউনিয়নের বাসুদেবকোল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে গত (০১ এপ্রিল) সোমবার দুপুরে প্রধান শিক্ষক ছাত্রীকে ডেকে নির্জন কক্ষে নিয়ে কু-প্রস্তাব দেয়। রাজী না হওয়ায় জোর পূর্বক জরিয়ে ধরে আপত্তিকর স্থানে হাত দেয়।

চিৎকার করার সময় হাত দিয়ে মূখ চেপে ধরে কুরুচিকর কথা বলেন। পরে দৌড়ে বাড়ি এসে পরিবারকে জানান। বিষয়টি স্থানীয় মাতাব্বর ও স্কুল ম্যানেজিং কমিটিকে জানানো হয়। কিন্তু তারা শিক্ষকের বিরুদ্ধে কোনো ব্যবস্থা গ্রহণ করেন নি।

অভিযুক্ত প্রধান শিক্ষক আব্দুল খালেক জানান, তার বিরুদ্ধে আনিত অভিযোগ মিথ্যা, তিনি ষড়যন্ত্রের শিকার।

ভূঞাপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. রাশিদুল ইসলাম জানান, এ ঘটনায় একটি মামলা করেছে স্কুলছাত্রীর পরিবার। অভিযুক্ত শিক্ষককে গ্রেফতারের চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে।

উল্লেখ্য, এর আগেও শিক্ষক আব্দুল খালেক ভূঞাপুর সরকারি মডেল প্রাথমিক বিদ্যালয়ে কর্মরত থাকা অবস্থায় সহকর্মী শিক্ষিকাদের প্রতি আপত্তিকর মন্তব্য করেন।

পরে বিষয়টি জানাজানি হলে তদন্তের মাধ্যমে খালেককে দোষী সাব্যস্ত করে পানিশমেন্ট হিসেবে চর বাসুদেব কোল স্কুলে বদলি করা হয়।

খবরটি শেয়ার করুন..

Comments are closed.




© সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত । এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি ।
নির্মান ও ডিজাইন: সুশান্ত কুমার মোবাইল: 01748962840