মধুপুরে মারা যাওয়া যুবকের দাফন হলো করোনা রোগীর মতই

মধুপুরে মারা যাওয়া যুবকের দাফন হলো করোনা রোগীর মতই

tangail-pratidin

প্রতিদিন প্রতিবেদক: মধুপুরে জ্বর ও সর্দি কাশিতে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুবরণকারী হবিবুর রহমান হবির দাফন সম্পন্ন হয়েছে। মঙ্গলবার (৩১ মার্চ) সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায় মহিষমারা ইউনিয়নের টেক্কার বাজার কবরস্থানে করোনা রোগীর মতোই নিরাপত্তার মধ্যদিয়ে দাফন সম্পন্ন করা হয়। এসময় পাঁচ সদস্যের একটি টিম উপস্থিত ছিলেন।

উপজেলা মসজিদের পেশ ইমাম মাওলানা ছানোয়ার হোসেন মৃত হবিরের জানাজা নামাজের ইমামতি করেন। এসময় সেখানে উপস্থিত ছিলেন মধুপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আরিফা জহুরা, ওসি তারিক কামাল ও উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাক্তার রুবিনা।

মধুপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আরিফা জহুরা জানান, করোনাভাইরাসে মারা যাওয়া রোগীর মতই হবিবুর রহমান হবির দাফন সম্পন্ন করা হয়েছে। এছাড়াও উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাক্তার রুবিনা মারা যাওয়া ব্যক্তির নমুনা সংগ্রহ করেছেন। যা পরীক্ষার জন্য আইইডিসিআরে পাঠানো হবে। রিপোর্ট হাতে পেলে জানা যাবে তিনি করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ছিল কি-না। তিনি আরও জানান, নিহত হবির বাড়ি লকডাউন ঘোষণা করা হয়েছে। তার মা-বাবাসহ ওই বাড়িতে পাঁচজন সদস্য রয়েছে। এদিকে করোনাভাইরাসে হবি মারা গেছে মনে করে ওই এলাকাসহ পুরো মধুপুরে আতঙ্ক বিরাজ করছে। বাইরে কমে গেছে মানুষের চলাফেরা।

প্রসঙ্গত, উপজেলার মহিষমারা ইউনিয়নের টেক্কার বাজার গ্রামের হাসেন আলীর ছেলে হবিবুর রহমান হবি গেলো রোববার ঢাকা থেকে বাড়িতে এসেছিলেন। হবি জ্বর-সর্দি-কাশি নিয়ে বাড়িতে আসেন। বিষয়টি তার পরিবারের লোকজন গোপন রাখে। সোমবার থেকে তার পাতলা পায়খানা শুরু হয়। মঙ্গলবার রক্ত বমি করা অবস্থায় তার মৃত্যু হয়। দুপুরে তার মৃত্যুর পরই এলাকায় ‘করোনায় আক্রান্ত’ হয়ে মারা গেছে বলে খবর ছড়িয়ে পড়ে। আশপাশের বাড়ির লোকজনও দূরে সরে যায়। খবর পেয়ে মধুপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আরিফা জহুরা, ওসি তারিক কামাল ও উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাক্তার রুবিনা ঘটনাস্থলে পৌঁছেন।

খবরটি শেয়ার করুন..

Comments are closed.




© সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত । এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি ।
নির্মান ও ডিজাইন: সুশান্ত কুমার মোবাইল: 01748962840