সংবাদ শিরোনাম:
মধুপুরে লেক খনন বন্ধের দাবীতে আদিবাসীদের মানববন্ধন

মধুপুরে লেক খনন বন্ধের দাবীতে আদিবাসীদের মানববন্ধন

হাফিজুর রহমান: টাঙ্গাইলের মধুপুর বনাঞ্চলে বন বিভাগের লেক খনন প্রকল্প বাতিলের দাবীতে ধারাবাহিক আন্দোলনের অংশ হিসেবে আবার বিক্ষোভ সমাবেশ ও মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে। মানববন্ধনে প্রকল্পের ওই জমি গারোদের বলে দাবী করছেন। ‘সম্মলিতি আদবিাসী ছাত্র জনতা’র ব্যানারে বুধবার দুপুরে মধুপুর বনাঞ্চলের দোখলা এলাকায় অনুষ্ঠিত এ সমাবেশে গারোদের সঙ্গে স্থানীয় কোচরাও অংশগ্রহণ করেন। মধুপুর বনের আমতলী বাইদ এলাকায় ৪৫ বিঘা জমিতে ১৩টি গারো পরিবার বংশপরম্পরায় চাষাবাদ করছে বলে গারোদের ভাষ্য।
বন বিভাগ এই জমিতে ‘স্থানীয় ও ক্ষুদ্র জনগোষ্ঠীর সহায়তায় মধুপুর জাতীয় উদ্যানের ইকো ট্যুরিজম উন্নয়ন ও টেকসই ব্যবস্থাপনা’ শীর্ষক প্রকল্পের অধীন ৬০ লাখ টাকা ব্যয়ে লেক খননের উদ্যোগ নেয়। গত ২২ এপ্রিল বন বিভাগ ওই জমিতে সংরক্ষিত বনাঞ্চলের সাইনবোর্ড টাঙিয়ে সর্বসাধারণের প্রবেশ নিষিদ্ধ ঘোষণা করে।

বিক্ষোভ সমাবেশে সভাপতির বক্তব্যে বাংলাদেশ গারো ছাত্র সংগঠনের (বাগাছাস) কেন্দ্রীয় সভাপতি জন জেত্রা বলেন, “এই জমিতে স্থানীয় গারো জাতিগোষ্ঠীর ১৩টি পরিবার বংশপরম্পরায় চাষাবাদ করে আসছে। জমিতে লেক খননের উদ্যোগের মধ্য দিয়ে বন বিভাগ গারোদের উচ্ছেদ প্রক্রিয়া শুরু করেছে। এটা জাতিসংঘের আদিবাসী ঘোষণাপত্র এবং আইএলও কনভেশনের লঙ্ঘন”। ১৩ জন জমি মালিকের অন্যতম কৌশল্যা নকরেক বলেন, “এ জমি আমরা উত্তরাধিকার সূত্রে পেয়েছি। ১৯৮২ সাল পর্যন্ত খাজনা দিয়েছি আমরা। এখানে তিন ফসল হয়। আমাদের প্রধানমন্ত্রী বলেছেন ফসলের জমি খালি রাখা যাবে না। কিন্তু বনবিভাগ এখানে লেক খনন করতে এসেছে। আমরা এটা হতে দেব না।” গারো স্টুডেন্ট ফেডারেশানের সাধারণ সম্পাদক লিয়াং রিছিলের সঞ্চালনায় সমাবেশে বাংলাদেশ আদিবাসী যুব ফোরামের সাংগঠনিক সম্পাদক টনি ম্যাথিউ চিরান, আদবিাসী ছাত্র সংগ্রাম পরিষদের সাধারণ সম্পাদক অলিক মৃ প্রমূখ বক্তব্য রাখেন।

গারোদের এ বিক্ষোভ সম্পর্কে জানতে চাওয়া হলে টাঙ্গাইল বিভাগীয় বন র্কমর্কতা মো. সাজ্জাদুজ্জামান বলেন, “যেখানে লেক খনন করা হবে সেখানে গারোদের কোনো জায়গা নেই। তারা বিরোধিতার জন্য বিরোধিতা করছেন শুধু।”

খবরটি শেয়ার করুন..

Comments are closed.




© সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত । এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি ।
নির্মান ও ডিজাইন: সুশান্ত কুমার মোবাইল: 01748962840