সংবাদ শিরোনাম:
সখীপুরে মুক্তিযোদ্ধা লাঞ্ছিত

সখীপুরে মুক্তিযোদ্ধা লাঞ্ছিত

প্রতিদিন প্রতিবেদক সখিপুর : সখিপুর উপজেলা কিত্তনখোলা মৌজার বীর মুক্তি যোদ্ধা মোঃ আকবর আলী বলেন আমার বাড়ী থেকে কিছু দুরে ৪৪৪ নং দাগে আমার ফল ও কাঠ গাছের বাগান, সংলগ্ন সরবেশ আলীর বাড়ীর লোকজন প্রায়ই গাছের ডাল পালা কেটে খরি বানায় গত ২৭-০৮-১৯ তারিখে আমার স্রী নিষেধ করায়৷

অকথ্য ভাষায় গালাগাল করে ও টেনে হিচরে রাস্তায় ফেলে দিয়ে এরপর কথা বললে দা দিয় কোবানোর হুমকী দেয়। এবিষয়ে সমাজ বাসীর কাছে জানাই। ২৯-০৮-১৯ তারিখে সকাল ৯ঘটিকার সময় স্হানীয় গন্য গন্যমান্য হিতৈষী মাতব্বর মুক্তিযোদ্ধাদের ঘটনাস্থলে ডেকে নিয়ে যাই মাডাব্বর দ্বিতীয় পক্ষের চরম উত্তেজনা মুলুক অবস্হা দেখে অবস্হা পশমিত করার লক্ষে পরিমাপের সিদ্ধান্ত দেন। 

স্ব-স্ব পক্ষের আমিন মাতব্বর ও লোকজন রাখার পরামর্শ দিয়ে বাড়ী ফেরার পথে মাতাব্বরদের সাথে আমি যাওয়া সময় শরবেশ গং পথ রোধ করে বীর  মুক্তিযোদ্ধা আকবর আলীকে শারিরিক লাঞ্চিত করে পড়নের লুঙ্গির অর্ধেক ছিরে নেয়।

উপরোক্ত অস্থিতিশীল পরিস্হিতি উন্নয়নে গত ০১-০৯-১৯ তারিখে বিকাল চার ঘটিকার সময় কীর্ত্তন খোলা ঘটনাস্থলে জনাব আজিজ মাষ্টার (বীর মুক্তিযোদ্ধা) সাহেবের সভাপতিত্ত্বে শালিসী বৈঠক বসেন, বিবাদী গন উপস্হিত না হইয়া ৪নং বিবাদীর চাচা ১ ও ২নং বিবাদীরা দাদা জনাব রমজান আলী,

বীর (মুক্তিযোদ্ধা)মোঃ সুমেস (বীর মুক্তিযোদ্ধা) মোঃ সাইফুল ইসলাম মোঃ খোয়াজ আলী সাহেব উপস্হিত হয়ে বাদীর অভিযোগে আলোকে আলোচনায়

১। মকবুল হোসেন সাবেক মেম্বার(৫৫)পিতা মৃত আহম্মেদ আলী ২। মোঃ আনিচ (৩২)পিতা মৃত খালেক ৩। মোঃ বিল্লাল (৩০)পিতা মৃত রমেজ ফকির ৪।মৃত মুকতু মিয়ার পুত্রমোঃ জোয়াহের (৩০) দের যোগসাজসে  শরবতসহ পুত্র কন্যাগনের অপকর্মে সমাজ বাসী হুমকীর মুখে বলে জানান পর্যালোচনা আনতে সর্বসম্মতিক্রমে দায়ী ও দোষী সাবস্ত হয়ে তারা কেউ উপস্হিত না থাকায়  অভিযোগ কারী মোঃ আকবর আলী মিয়াকে আইনের আশ্রয় নেওয়ার পরামর্শ দিয়ে শালিনী বৈঠক শেষ করেন বলে জানান। সরেজমিনে অনুসন্ধান চলছে। 

খবরটি শেয়ার করুন..

Comments are closed.




© সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত । এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি ।
নির্মান ও ডিজাইন: সুশান্ত কুমার মোবাইল: 01748962840