সংবাদ শিরোনাম:
ঢাকা-টাঙ্গাইল ও বঙ্গবন্ধু সেতু মহাসড়কে ঝুঁকি নিয়ে ট্রাক-পিকআপে বাড়ি ফিরছে ঘরমুখো মানুষ টাঙ্গাইলে “সেফ লাইফ বাংলাদেশ” এর ঈদ উপহার বিতরণ  শিশুদের নিয়ে ঈদ উৎসব করলো দশমিক ফাউন্ডেশন বাসাইলে জোড়া খুন; জড়িতদের ফাঁসির দাবিতে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ ফেসবুকে ভুয়া আইডি, থানায় জিডি করলেন নবনির্বাচিত ধনবাড়ী উপজেলা চেয়ারম্যান টাঙ্গাইলের ঐতিহ্যবাহী গোপালপুরে শত বছর পুরানো হাটে কুরবানীর পশু ক্রয় বিক্রয় মাভাবিপ্রবিতে রংপুর ডিভিশনাল অ্যাসোসিয়েশনের নতুন কমিটি গঠন টাঙ্গাইলে প্রাইভেটকার ও গরুবাহীট্রা‌কের মু‌খোমু‌খি সংঘ‌র্ষে তিন নিহত, আহত দুই দেলদুয়ারে আরমৈষ্টা গ্রামে  জামিলা একাডেমির শুভ উদ্বোধন ৯ মাসে ৭ বার টাঙ্গাইল জেলায় শ্রেষ্ঠ অফিসার নির্বাচিত হলেন  মোল্লা আজিজুর রহমান
হুগড়ার প্রাক্তন চেয়ারম্যান তোফার বিরুদ্ধে সংবাদ সম্মেলন- বায়না জমি রেজিষ্ট্রি চাইলে প্রাননাশের হুমকি

হুগড়ার প্রাক্তন চেয়ারম্যান তোফার বিরুদ্ধে সংবাদ সম্মেলন- বায়না জমি রেজিষ্ট্রি চাইলে প্রাননাশের হুমকি

প্রতিদিন প্রতিবেদক: টাঙ্গাইল সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও হুগড়া ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান তোফাজ্জল হোসেন খান তোফার বিরুদ্ধে স্থানীয় এক ব্যবসায়ীকে হত্যার হুমকিসহ নানা অভিযোগ করেছেন এক ভুক্তভোগী। ফলে আতঙ্কে ব্যবসায়ী ও তার পরিবার গ্রাম ছেড়ে পালিয়ে বেড়াচ্ছেন দীর্ঘদিন ধরে। মঙ্গলবার (৯ মে) দুপুরে সদর উপজেলার হুগড়া ইউনিয়নের মৈশা গ্রামে নিজ ব্যবসা প্রতিষ্ঠান ওই ভুক্তভোগী সংবাদ সম্মেলনে এমন অভিযোগ করেন।
ভুক্তভোগী ওই ব্যবসায়ী শাহীন আলম সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে জানান, ২০১৬ সালের ৯ জানুয়ারি হুগড়া ইউনিয়নের প্রাক্তন চেয়ারম্যান তোফাজ্জল হোসেন তোফা তার পৈত্রিক সুত্রে পাওযা মৈশা মৌজার সাড়ে ৪৬ শতাংশ আবাদী জমি আমার কাছে বিক্রির প্রস্তাব করেন। যার বিক্রি মুল্যে নির্ধারন করা হয় ৫ লাখ ৭৭ হাজার সাত শত টাকা। ওই দিনই ৫ লাখ ২৫ হাজার টাকা নগদ পরিশোধ করে ও ৫২ হাজার ৭’শ টাকা বাকি রেখে স্থানীয় ইউপি সদস্য মজনু সরকার ও সংরক্ষিত মহিলা মেম্বার পঞ্চতারা বেগমের স্বাক্ষীতে উক্ত জমির বায়নাপত্র সম্পন্ন হয়। এ জমির বায়না সম্পন্ন হওয়ায় পর জমির উপর আরএসএস প্লাস্টিক ডোর নামে একটি ফ্যাক্টরি স্থাপন করি। বর্তমানে ফ্যাক্টরিতে ৩০ জন শ্রমিকের কর্মরত আছে।
লিখিত বক্তব্যে তিনি আরো বলেন, দীর্ঘ ৭ বছরেও তোফাজ্জল হোসেন তোফা তার বায়নাকৃত সম্পত্তি রেজিস্ট্রি দলিল না করে নানা তালবাহানা করে আসছে। উপরন্ত জমি রেজিস্ট্রির জন্য চাপ দিলে গত ২৫ শে ফেব্রুয়ারি সকাল ১১টায় তোফাজ্জল হোসেন তোফা তার সহযোগীদের নিয়ে আমার প্রতিষ্ঠানে আসে। এ সময় তারা আমাকে প্রাণনাশ ও গুম করে ফেলার হুমকি দেয়। এক পর্যায়ে বাঁশের খাম দিয়ে সন্ত্রাসী প্রকৃতির ফরিদ আমাকে মারতে উদ্যত হয়। আমার ডাক চিৎকারে আশপাশের লোকজন এগিয়ে আসলে প্রাণে মেরে ফেলার হুমকি দিয়ে তারা চলে যায়।
পরে উক্ত জমি রক্ষায় গত ৫ মার্চ টাঙ্গাইল চীফ জুডিশিয়ায়াল ম্যাজিষ্ট্রেট আদালতে একটি মামলা দায়ের করি। এছাড়া টাঙ্গাইল সদর থানায় জীবন রক্ষার্থে একটি সাধারণ ডায়রি (জিডি) করতে যাই। তবে তোফা সরকারী দলের নেতা হওয়ার কারনে জিডিটি গ্রহন করা হয়নি।
তিনি বলেন, আমার ওই ফ্যাক্টরি ব্যাংক ও ব্যাক্তিগত পর্যায়ে ৫০ লাখ টাকা ঋণ নিয়ে প্রতিষ্ঠা করেছি। বর্তমানে আ’লীগ নেতা তোফার ভয়ে আমি ও আমার পরিবার এলাকা ছাড়া। ফলে ফ্যাক্টরি বন্ধ হওয়ার উপক্রম হয়েছে। এছাড়া জীবনের নিরাপত্তাহীনতার কারণে পরিবার পরিজন নিয়ে পালিয়ে থাকায় ধীরে ধীরে ঋনগ্রস্থ হয়ে পড়েছি। সংবাদ সম্মেলনে তার প্রতিষ্ঠান ও পরিবারের জীবন রক্ষায় স্থানীয় প্রশাসনের সহযোগিতা কামনা করেন।
সংবাদ সম্মেলনে ইউপি সদস্য শওকত আলী, স্থানীয় মাতাব্বর আজিবর দেওয়ান, তায়েজ উদ্দিন, সামাদ মিঞা, আবু হানিফ ,আব্দুল মান্নানসহ শতাধিক গ্রামবাসী উপস্থিত ছিলেন।

খবরটি শেয়ার করুন..

Comments are closed.




© সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত । এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি ।
নির্মান ও ডিজাইন: সুশান্ত কুমার মোবাইল: 01748962840