সংবাদ শিরোনাম:
টাঙ্গাইলে ১৬ সরকারি প্রতিষ্ঠানে উড়ছে না জাতীয় পতাকা টাঙ্গাইলে ওয়ালটনের নন স্টপ মিলিয়নিয়ার অফার উপলক্ষে র‌্যালী কালিহাতীতে আওয়ামীলীগ-সিদ্দিকী পরিবার মুখোমুখি টাঙ্গাইলের তিন উপজেলায় মাঠ-ঘাট চষে বেড়াচ্ছেন প্রার্থীরা টাঙ্গাইলের কালিহাতীতে বজ্রপাতে দুই ভাইয়ের মৃত্যু রংপুরে শুরু হয়েছে শেখ হাসিনা অনুর্ধ্ব-১৫ টি টোয়েন্টি প্রমীলা ক্রিকেট টুর্নামেন্ট ঘাটাইল উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চশমা প্রতীক নিয়ে সাংবাদিক আতিক জনপ্রিয়তায় শীর্ষে ও জনসমর্থনে এগিয়ে ঘাটাইলে সেলাই মেশিন মার্কায় ভোট চাইলেন পৌর মেয়র আব্দুর রশীদ মিয়া টাঙ্গাইলে পুটিয়াজানী বাজারে দোকান ঘর ভাঙ্গচুরের অভিযোগ দেবরের বিরুদ্ধে সিরাজগঞ্জে ২১৬ কেজি গাঁজাসহ আটক ২ ; কাভার্ড ভ্যান জব্দ সাফল্য অর্জনেও ব্যতীক্রম নয় জমজ দুই বোন,  লাইবা ও লামিয়া দুজনেই পেলেন জিপিএ- ৫
২য় দিনেও তালাবদ্ধ ভাসানীর ভিসি ড. ফরহাদ

২য় দিনেও তালাবদ্ধ ভাসানীর ভিসি ড. ফরহাদ

প্রতিদিন প্রতিবেদক: আন্দোলনের ২য় দিনেও তালাবদ্ধ রয়েছেন মাওলানা ভাসানী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ভাইস-চ্যান্সেলর (ভিসি) প্রফেসর ড. মোঃ ফরহাদ হোসেন। তৃতীয় শ্রেণীতে এডহক ভিত্তিতে কর্মরত ২২জন কর্মচারীদের চাকুরী স্থায়ীকরণের দাবিতে বুধবার সকাল ৯ টা ১৫ মিনিট থেকে ভাইস-চ্যান্সলরের কার্যালয় তালাবদ্ধ করা হয়। এ নিয়ে বিশ^বিদ্যালয়ের প্রো-ভাইস চ্যান্সেলর, ট্রেজারার, অভ্যন্তরীণ রিজেন্ট বোর্ড সদস্য, ডিন, বিভাগীয় চেয়ারম্যান, সিনিয়র শিক্ষকবৃন্দ আন্দোলনকারীদের সাথে দফায় দফায় আলোচনা করলেও সমস্যার সমাধান না হওয়ায় ভাইস-চ্যান্সেলর তালাবদ্ধ অবস্থায় রয়েছেনবলে জানা গেছে।

আন্দোলনকারীরা আরও জানায়, গত ৩০ অক্টোবর তৃতীয় শ্রেণী কর্মচারী সমিতির পক্ষ থেকে স্মারকলিপি প্রদান করা হয়। ওই স্মারকলিপিতে ১৪ দফা দাবি জানানো হয়। দাবিগুলো হলো- তৃতীয় শ্রেণী কর্মচারী সমিতির সঙ্গে পরামর্শক্রমে পরবর্তী বাছাই বোর্ড সমূহ দেওয়ার অনুরোধ করা হলো। বিজ্ঞাপিত পদে নিয়োগের ক্ষেত্রে ১০০% অভ্যন্তরীন প্রার্থীদের নিয়োগ প্রদান করা। অভ্যন্তরীন প্রার্থীদের শুধু মাত্র মৌখিক ভাইভা বোর্ডের ব্যবস্থা করা। বিজ্ঞাপিত ১৫টি পদের বিপরীতে ২২ জন এডহক ভিত্তিতে নিয়োজিত কর্মচারীদের স্থায়ীকরণ করা। তৃতীয় শ্রেণী কর্মচারীদের অসামঞ্জস্য পদকে সামঞ্জস্য করে নীতিমালায় অর্ন্তভুক্ত করা। যথাসময়ে তৃতীয় শ্রেণী কর্মচারীদের আপগ্রেডেশনের ব্যবস্থা করা। ড্রাইভারদের অধিকাল ভাতাসহ টিএডিএ প্রদান করা। তৃতীয় শ্রেণী কর্মচারীদের জন্য পৃথক মিনিবাসের ব্যবস্থা করা। তৃতীয় শ্রেণী কর্মচারী নিয়োগের ক্ষেত্রে ৮০% টাঙ্গাইলের লোকদের নিয়োগ প্রদান করা। তৃতীয় শ্রেণী কর্মচারীদের নিয়োগে পোষ্য কোঠা নির্ধারণ করা। এ বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষক, কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের জন্য মোটর কার ও মোটরসাইকেলের জন্য কর্পোরেট লোনের ব্যবস্থাকরণ। তৃতীয় শ্রেণী কর্মচারী সমিতির জন্য একটি কার্যালয়ের ব্যবস্থাকরণ। তৃতীয় শ্রেণী কর্মচারীদের জন্য বিশ্ববিদ্যালয় রেশিও অনুযায়ী গেষ্ট গাউজের ব্যবস্থাকরণ। বিশ্ববিদ্যালয়ের গাড়িচালক এবং কারিগরি কর্মচারীদের দাপ্তরিক সাজ-পোশাকের জন্য জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের ২০১৮ সালের পরিপত্র এবং বাংলাদেশের গেজেট অনুযায়ী ব্যবস্থাকরণ। এ বিশ্ববিদ্যালয়ে কর্মরত তৃতীয় শ্রেণীর কোনো চাকরিজীবি চাকরিরত অবস্থায় মৃত্যুবরণ করলে মৃত কর্মচারীর পরিবার থেকে একজন তার শিক্ষাগত যোগ্যতা অনুযায়ী চাকরি প্রদান করা। তারা আরও জানায়, স্মারকলিপি প্রদানের পরেও ২ নভেম্বর কেয়ারটেকার পদের নিয়োগ বোর্ড রাখায় তারা ভাইস-চ্যান্সেলরের কার্যালয় তালাবদ্ধ করে।

এ বিষয়ে আন্দোলনকারী ও তৃতীয় শ্রেণী কর্মচারী সমিতির সভাপতি এস.এম মাহফুজুর রহমান জানান, তৃতীয় শ্রেণীর কর্মচারী সমিতির (মাভাবিপ্রবিতৃকস) কার্যকরী পরিষদ ৩৯তম সভার সিদ্ধান্ত মোতাবেক পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত ৩য় শ্রেণীর সকল সদস্য কর্মবিরতি পালন করবে। তবে অ্যাম্বুলেন্স, ছাত্র-ছাত্রী সংশ্লিষ্ট এবং জরুরী সেবা সমূহ চালু থাকবে। এছাড়া অন্যান্য সকল পরিবহন সেবা বন্ধ থাকবে।
তিনি আরও জানান, আমাদের ৩য় শ্রেণীর আন্দোলনের সাথে ৪র্থ শ্রেণী কর্মচারী সমিতিও একাত্মতা প্রকাশ করেছে।

এ বিষয়ে মাওলানা ভাসানী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ভাইস চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. মো. ফরহাদ হোসেন জানান, গত ভিসির সময়ে পোস্ট এডহকে নিয়োগ পেয়েছিল তারা। বিভিন্ন বিভাগে নতুন নিয়োগের জন্য আমরা ১৫টি পদ পেয়েছি। ইতোমধ্যে দুটি পদে নিয়োগ দেয়া হয়েছে। গতকাল ছিল ১টি পদের নিয়োগ পরীক্ষা। তবে আন্দোলনরতরা ওই নিয়োগ পরীক্ষা নিতে না দিয়ে ও বিভিন্ন দাবী নিয়ে আমাকে অবরুদ্ধ করে কক্ষে তালা ঝুলিয়ে দিয়েছে। আজ দুইদিন হল আমাকে অবরুদ্ধ করে রাখা হয়েছে। এ বিয়য়ে আমি ইউজিসি কর্তৃৃপক্ষের সাথে কথা বলেছি। কর্তৃপক্ষ আরও ৭টি পদে নিয়োগ দেয়ার আশ^াস দিয়েছেন। ইউজিসি চেয়ারম্যান আন্দেলনরত কর্মচারিদেও নেতার সাথেও এ বিষয়ে কথা বলেছেন, তবে তারা সেই আশ^াস মেনে না নিয়ে আন্দোলন অব্যাহত রেখেছেন। এ অবস্থা চলমান থাকলে পরবর্তী ব্যবস্থা নেয়ার কথা জানান তিনি।

খবরটি শেয়ার করুন..

Comments are closed.




© সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত । এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি ।
নির্মান ও ডিজাইন: সুশান্ত কুমার মোবাইল: 01748962840