সংবাদ শিরোনাম:
৪৮ ঘন্টা কেন, ৪৮ দিনের আল্টিমেটামেও বিএনপি সফল হবে না -কৃষিমন্ত্রী ঘাটাইলে ট্রাক চাপায় কলেজ শিক্ষার্থীর মৃত্যু ভূঞাপুরে প্রতিবন্ধী কিশোরীকে ধর্ষণ, গ্রেপ্তার ১ টাঙ্গাইলে বন্ধুমহল ব্লাড ডোনার সোসাইটির তৃতীয় প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালিত কালিহাতীতে সাবেক চেয়ারম্যানের ছেলে সাজাপ্রাপ্ত আসামি গ্রেফতার উজার হচ্ছে টাঙ্গাইলের ফুসফুস খ্যাত মধুপুরের শাল গজারির বন ভূঞাপুরে প্রফেসর ডা: তাসমিনা মতিনের ৬ষ্ঠ মৃত্যুবার্ষিকীতে দোয়া মাহফিল সরকারের গতিশীল নেতৃত্বে দেশ আজ খাদ্যে স্বয়ংসম্পূর্ণ – এমপি শুভ ভাসানী বিশ্ববিদ্যালয়ে বিশ্ব ফার্মাসিস্ট দিবস পালিত টাঙ্গাইল জেলা কারাগারে কারাবন্দীদের দর্জি ও সেলাই প্রশিক্ষণের উদ্বোধন
টাঙ্গাইল সদর এমপি’র বিরুদ্ধে নির্বাচনী আচরন বিধিলংঘনের অভিযোগে সংবাদ সম্মেলন

টাঙ্গাইল সদর এমপি’র বিরুদ্ধে নির্বাচনী আচরন বিধিলংঘনের অভিযোগে সংবাদ সম্মেলন

প্রতিদিন প্রতিবেদকঃ টাঙ্গাইল-০৫ (সদর) আসনের সংসদ সদস্য ছানোয়ার হোসেনের বিরুদ্ধে উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে আচরন বিধি লংঘনের অভিযোগ করেছেন আওয়ামী লীগ নেতা ও উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী এডভোকেট খোরশেদ আলম।

মঙ্গলবার বিকেলে টাঙ্গাইল প্রেসক্লাবে সাংবাদিক সম্মেলনে তিনি এ অভিযোগ আনেন। আর এ ব্যপারে তিনি নির্বাচন কমিশনেও লিখিত অভিযোগের প্রস্তুতি নিচ্ছেন বলে জানান।

লিখিত বক্তব্যে সতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী ও সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি খোরশেদ আলম বলেন, উপজেলা নির্বাচনে আওয়ামী লীগ সিদ্ধান্ত নিয়েছে অংশগ্রহনমুলক নিশ্চিত যাতে হয়, সেজন্য যদি কোন বিদ্রোহী প্রার্থী প্রতিদ্বন্দিতা করেন, তবে তার বিরুদ্ধে কোন শাস্তিমুলক ব্যবস্থা নেয়া হবেনা।

এজন্যেই আমি আনারস মার্কায় নির্বাচন স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে নির্বাচন করছি। আমার সাংগঠনিক কর্মকান্ড ও জনপ্রিয়তায় ঈর্ষান্বিত হয়ে টাঙ্গাইল সদর আসনের সংসদ সদস্য ছানোয়ার হোসেন তার বাড়িতে বর্ধিত সভা ডেকে সভাপতির পদ থেকে আমাকে অব্যাহতি দিয়েছেন বলে আমি জানতে পারি। যা বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের গঠনতন্ত্রের সুষ্পষ্ট লংঘন। আমাতে অব্যাহতি দেয়ার এখতিয়ার তার নেই।

লিখিত বক্তব্যে খোরশেদ আলম অভিযোগ করেন, সংসদ সদস্য ছানোয়ার হোসেন বাসায় ডেকে নিয়ে তার কর্মী-সমর্থকদের ভয়ভীতি দেখিয়ে প্রভাব বিস্তারের চেষ্টা করছেন। যা নির্বাচনী আচরনবিধির সুষ্পষ্ট লংঘন।

ফলে নির্বাচনী মাঠে সাধারন ভোটারদের মাঝে আতঙ্ক বিরাজ করছে। এ অবস্থা চলতে থাকলে নির্বাচন কমিশন এবং সরকারের ভাবমুর্তি ক্ষুন্ন এবং নির্বাচন প্রশ্নবিদ্ধ হবে।

সাংবাদিক সম্মেলনে সদর উপজেলার গালা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ও আওয়ামী লীগ নেতা রাজ কুমার সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে বলেন, উপজেলা নির্বাচনে তৃনমুল থেকে প্রার্থী বাছাইকালে আমরা গোপন ভোটের ব্যবস্থার দাবি জানিয়েছিলাম।

কিন্তু সংসদ সদস্য ছানোয়ার হোসেনের বাড়িতে (তৃনমুল ভবনে) তা না করে একতরফা সিদ্ধান্ত দিয়ে চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগের প্রার্থী বাছাই করা হয়।

গোপন ভোটে প্রার্থী বাছাই করা হলে সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি খোরশেদ আলম দুই-তৃতীয়াংশ ভোটের ব্যবধানে জয়ী হতো।


এ সময় সংবাদ সম্মেলনে টাঙ্গাইল সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক ও গালা ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান রাজকুমার সরকার, আইনবিষয়ক সম্পাদক সোলায়মান সরকার, উপদেষ্টা নুরুল ইসলাম, পোড়াবাড়ি ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি ফজলুর রহমান প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন ।

খবরটি শেয়ার করুন..

Comments are closed.




© সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত । এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি ।
নির্মান ও ডিজাইন: সুশান্ত কুমার মোবাইল: 01748962840