সংবাদ শিরোনাম:
ভূঞাপুরে চড়াই উৎরাইয়ের মধ্য দিয়ে সবার মনোনয়ন বৈধ কালিহাতীতে পৌলীতে রেল সেতুর দুই পাশে বালু বিক্রির মহোৎসব মাদরাসা ছাত্রীর প্রেমের টানে ও ঘর বাঁধতে টাঙ্গাইলে আরেক ছাত্রী মধুপুরে জৈব কৃষি ব্যবস্থাপনা বিষয়ক প্রশিক্ষণ অনুষ্ঠিত তীব্র গরম ও তাপদাহে অতিষ্ঠ মধুপুরবাসী বাড়ছে নানা রোগ সখীপুরে প্রকৃতি ও শান্তি সংঘের উদ্যোগে গাছের চারা বিতরণ টাঙ্গাইলের বাসাইল থেকে ৪৯ কেজি গাঁজা সহ ০৪ মাদক ব্যবসায়ী আটক পৌর উদ্যানের শতবর্ষী গাছ কাটার প্রতিবাদে মানববন্ধন  টাঙ্গাইলে পারিবারিক কলহে পিতাকে পিটিয়ে আহত করেছে ছেলে সিরাজগঞ্জে পুলিশের উপর হামলা, মদ ও অস্ত্রসহ আ.লীগ নেতার স্ত্রী আটক
নাগরপুরে পরিবারের নিরাপত্তা চেয়ে সংবাদ সম্মেলন

নাগরপুরে পরিবারের নিরাপত্তা চেয়ে সংবাদ সম্মেলন

tangail-pratidin

প্রতিদিন প্রতিবেদক নাগরপুর: নাগরপুরে পাওনা টাকা আদায়ে আইনী পদক্ষেপ নেওয়ায় চাচার হুমকিতে নিরাপত্তাহীনতায় ভূগছে ভাতিজার পরিবার। বৃহস্পতিবার (১৯ মার্চ) সকালে নাগরপুর প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করে ভূক্তভোগি ভাতিজা জয়নাল আবেদীন বিদ্যুৎ এর পরিবার।

সংবাদ সম্মেলনে পরিবারের পক্ষে লিখিত বক্তব্য পাঠকালে বিদ্যুৎ অভিযোগ করেন তার আপন চাচা মালয়েশিয়া প্রবাসী আঃ রউফ লিটন একজন জনশক্তি ও হুন্ডি ব্যবসায়ী। এছাড়া মালয়েশিয়া বিএনপি’র সহ-সভাপতি ও তারেক জিয়ার ঘনিষ্ঠ সহচর বিএনপি’র দাতা সদস্য।

তিনি জায়গা জমি ক্রয়, বাড়ি নির্মাণ ও জনশক্তি ব্যবসার কারনে বিভিন্ন দফায় আমার ও আমার পরিবারের কাছ থেকে ৮০ লক্ষ টাকা গ্রহন করে চাচা লিটন। পরবর্তীতে গত ২০১৯ সালের ২৮ মার্চ ৩০ লক্ষ ২০ হাজার টাকা ও ২৯ মার্চ ২০১৯ তারিখে ২৮ লাখ ৫৬ হাজার ৭২০ টাকার পৃথক দুটি চেক আমাকে দিয়ে চাচা লিটন ফের মালয়েশিয়া চলে যান।

মালয়েশিয়া যাওয়ার পর থেকে আমার সাথে সব ধরনের যোগাযোগ বন্ধ করে দেন। চাচাকে আমার পাওনা টাকা ও ভিসার জন্য তাগিদ দেই। কিন্তু সে কোন প্রকার টাকা ফেরৎ না দিয়ে উল্টো মালয়েশিয়া অবস্থান করে সেখান থেকে বিভিন্নভাবে হুমকি ও হয়রানী করে চলছে।

এলাকার সন্ত্রাসী শ্রেণির লোক দিয়ে হুমকি এবং আমার ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে হামলার ঘটনা ঘটায়। আমি অসহায় বিধায় তাদের বিরুদ্ধে আদালতে ১০৭ ধারা (শান্তি রক্ষা) মামলা দায়ের করি। এরপর আমার চাচা লিটন আরো বেপরোয়া হয়ে উঠে। একের পর এক হুমকি দিয়েই চলছে।

বর্তমানে আমি ও আমার পরিবার চরম নিরাপত্তাহীনতায় রয়েছি। এসময় উপস্থিত ছিলেন বিদ্যুতের বাবা মো.আকবর হোসেন, মা আলেয়া বেগম, বোন ফাতেমা আক্তার, স্বপ্না আক্তার, স্ত্রী সাদিয়া আক্তার লিমা ও শিশু সন্তান জুনায়েদ আবেদিন সাদ।

খবরটি শেয়ার করুন..

Comments are closed.




© সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত । এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি ।
নির্মান ও ডিজাইন: সুশান্ত কুমার মোবাইল: 01748962840