এবার দুর্গাপূজায় টাঙ্গাইলে চার জনের মৃত্যু

সাজেদুল করিম : টাঙ্গাইলে এবার দূর্গাপূজায় অতিরিক্ত মদ পানে দুই জন সহ চার জনের মৃত্যু হয়েছে। এ ঘটনায় এক জন অসুস্থ হয়েছে। চার মৃত্যুতে নিজ নিজ এলাকায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে।

বৃহস্পতিবার ভোরে টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় কালিহাতীর উপজেলার উত্তর বেতডোবা পালপাড়া গ্রামের ভজন পালের ছেলে গোপাল চন্দ্র পাল (৩৫) এবং বুধবার রাতে একই সগ্রামের দিনু পালের ছেলে আনন্দ পাল (৪৫) নিজ বাড়িতে মারা যায়।

তারা দু’জনেই অতিরিক্ত মদ পানের কারণে মারা গেছে বলে জানিয়েছেন কর্তব্যরত চিকিৎসক।

অপরদিকে টাঙ্গাইল সদর উপজেলার গালা ইউনিয়নের ব্রাক্ষণকুশিয়া গ্রামের ফালু সূত্রধরের ছেলে কাজল সূত্রধর (২২)-এর বিদ্যুৎ পৃষ্ট হয়ে মৃত্যু হয়।

সে ঢাকার ওয়ালটন কোম্পানীতে চাকুরী করতো। অষ্টমীপূর্জার ছুটিতে বাড়ী আসে।সকালে বাড়ীর সাথেই মন্দিরে পাশে দাঁড়িয়ে বন্ধুদের সাথে আড্ডা দিচ্ছিলেন।

সেখানে আড্ডার ছলে দাঁড়িয়ে মন্দির সাঁজানো লাইটিংয়ের জিআই তার হাত দিয়ে ধরেন। সেখানে সে আটকে যায়। এরপর সে কোন কথা না বলায় পাশের বন্ধুরা তাকে ধরতে গেলে বিদ্যুৎ সর্ট লেগে পড়ে যায়।

পরে মেইন সুইচ বন্ধ করার সাথে সাথে সে মাটিতে পরে যায়। স্থানীয় চিকিৎসকরা তাকে মৃত ঘোষনা করেন।এ ঘটনায় এলাকায় শোকের ছায়া নেমে আসে।

এদিকে টাঙ্গাইল সদর উপজেলার পৌর এলাকার ঘাড়াইল গ্রামের বিপুল দত্ত (৪২) দশমী পূজার দিন শারীরিক ভাবে অসুস্থ্য হয়ে পরে। তার শরীরিক অবস্থা আরো অবনতি হলে রাত বারটার সময় টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে গেলে সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক অবস্থার অবনতি দেখে ঢাকা রেফার্ড করেন। ঢাকা শেখ ফজিলাতুন্নেছা হাসপাতালের চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষনা করেন।

বিপুল দত্ত গাড়াইল এলাকার অনিল দত্তের ছেলে। সে দীর্ঘ দিন ধরে গাড়াইল পূজা কমিটির সভাপতি ছিলেন এবং ডিস ব্যাবসা করতেন। তার মৃত্যুতে এলাকায় শোকের ছায়া নেমে আসে।

কালিহাতী পুলিশ এবং স্থানীয়রা জানান, গত ৮ অক্টোবর মঙ্গলবার দুর্গাপূজার বিজয়া দশমীর দিন উপজেলার বেতডোবা পালপাড়া গ্রামে আনন্দ পাল, গোপাল চন্দ্র পাল এবং টোকন পাল এক সাথে অতিরিক্ত মদ পান করেন।

এতে একপর্যায়ে আনন্দ পাল এবং গোপাল চন্দ্র পাল অসুস্থ হয়ে পড়েন। পরে তাদেরকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। সেখানে প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়ে আনন্দ পাল বাড়িতে চলে যায় এবং অপরদিকে উন্নত চিকিৎসার জন্য গোপাল চন্দ্র পালকে টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হয়।

পরে বুধবার রাতে নিজ বাসায় আনন্দ পাল মারা যায় এবং বৃহস্পতিবার ভোরে টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় গোপাল চন্দ্র পালের মৃত্যু হয়।

এছাড়া এদিকে অতিরিক্ত মদ পানের ফলে ওই গ্রামের টোকন পাল (৩৫) বুধবার রাতে অসুস্থ হয়। পরে পরিবারের লোকজন তাকে ময়মনসিংহ মেডিকেল হাসপাতালে ভর্তি করে।

কালিহাতী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) হাসান আল মামুন জানান, “দুর্গাপূজার বিজয়া দশমীর দিন অতিরিক্ত মদ পান করার ফলে দুইজনের মৃত্যু হয়।

এদের মধ্যে নিজ এলাকায় আনন্দ পালের মৃতদেহ বৃহস্পতিবার সকালে দাহ করা হয়েছে এবং গোপাল চন্দ্র পালের লাশ টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালে রয়েছে বলে ওসি জানান।”

খবরটি শেয়ার করুন..

Comments are closed.




© সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত । এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি ।
নির্মান ও ডিজাইন: সুশান্ত কুমার মোবাইল: 01748962840