কালিহাতীতে ভুমি অফিসে রেকর্ড টেম্পারিং এর অভিযোগ এনে সাংবাদিক সম্মেলন

কালিহাতীতে ভুমি অফিসে রেকর্ড টেম্পারিং এর অভিযোগ এনে সাংবাদিক সম্মেলন

মো.সোহের রানা: রেকর্ড টেম্পারিং করে এক জনের জমি অন্য জনের নামে চালিয়ে দেয়ার অভিযোগ উঠেছে টাঙ্গাইলের কালিহাতী উপজেলার গহেলাবাড়ী ইউনিয়নের সরাতৈল মৌজার জমির রেকর্ড সহকারী সেটেল্টম্যান অফিসারের বিরুদ্ধে। বৃহস্পতিবার ৩ আগষ্ট দুপরে টাঙ্গাইল প্রেসক্লাব মিলাতায়নে সংবাদ সম্মেলন এ অভিযোগ করেন ইলিয়াস হোসেন নামের এক ব্যাক্তি।
লিখিত বক্তব্যে ইলিয়াস হোসেন অভিযোগ করেন, ওয়ারিস দলিল সূত্রে এই জমির মালিক তার নানী মৃত জাবেদা খাতুন। ওয়ারিস দলিল সূত্রে জমির প্রকৃত মালিক মৃত জাবেদা খাতুন হলেও কালিহাতী উপজেলার গহেলাবাড়ী ইউনিয়নের সরাতৈল মৌজার জমির রেকর্ড তার ভাতিজা আনোয়ার হোসেন মন্ডলের নামে আসে। কালিহাতী উপজেলার সহকারী সেটেল্টম্যান অফিসের মো. জহির উদ্দিন ও মরতুজ আলী সহযোগীতায় অবৈধভাবে এই মাঠ পচরা পবিবর্তন করে অবৈধ ভাবে নতুন মাঠ পচরা তৈরী করেন। পরবর্তীতে মৃত জাবেদা খাতুনের মেয়েরা বাদী হয়ে মিস কেসের মাধ্যমে মামলা করেন কালিহাতী সেটেলম্যান অফিসে। ঐ মামলার রায় আমার মা খালাদের পক্ষে আসে । কিন্তু আনোয়ার হোসেন মন্ডল পুনরায় তাদের বিরুদ্ধে মামলা করেন। আমরা চাই, আমাদের জায়গা আমাদের বুঝিয়ে দেওয়া হোক। দরকার হলে পুনরায় তদন্ত করে শুনানি দেওয়া হোক। অবৈধভাবে মাঠ পচরা তৈরী করার সাথে জড়িতদের দৃষ্ঠান্ত মূলক শাস্তি দাবি করা হয় সংবাদ সম্মেলনে। উল্লেখ্য, ভুঞাপুর উপজেলার নিকরাইল ইউনিয়নের সারপলশিয়া গ্রামের মৃত মো. আব্দুল কদ্দুস খায়ের ছেলে ইলিয়াস হোসেন। তার মা ঝরনা বেগম মৃত জাবেদা খাতুনের মেয়ে।
এই ব্যাপারে কালিহাতী উপজেলার সহকারী সেটেল্টম্যান অফিসার মো. জহির উদ্দিন বলেন, এই বিষয়টি আমি অবগত আছি । তাদের রেকর্ডে কিছু কাটাছেড়া আছে। বর্তমানে বিষয়টি ঢাকা ডিজি আফিস তদন্ত করছে। বর্তমানে আমি এটি নিয়ে কোন মন্তব্য করতে পারবো না। তার বিষয়ে অভিযোগের কথা বললে তিনি বলেন, এই রেকর্ডের মামলাটি অনেক আগের । আমি কোন ভাবেই জড়িত নই। আমার বিরুদ্ধে অভিযোগ মিথ্যা।
কালিহাতী উপজেলার সহকারী সেটেল্টম্যান অফিসের খারিজ সহকারী মরতুজ আলী বলেন, এই ব্যাপারে আমি কিছুই জানি না। আমার ব্যাপারে অভিযোগ মিথ্যা।

খবরটি শেয়ার করুন..

Comments are closed.




© সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত । এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি ।
নির্মান ও ডিজাইন: সুশান্ত কুমার মোবাইল: 01748962840