টাঙ্গাইল করোনা মুক্ত।। আইসোলেশনে চিকিৎসাধীন তিন

টাঙ্গাইল করোনা মুক্ত।। আইসোলেশনে চিকিৎসাধীন তিন

প্রতিদিন প্রতিবেদক : টাঙ্গাইল জেলায় করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত কোন রোগীর সন্ধান এখনো পাওয়া যায়নি। জেলার ১২টি আইসোলেশন সেণ্টারে মাত্র তিন জন রোগী চিকিৎসাধীন রয়েছেন। সন্দেহজনক ২২ জনের নমুনা পরীক্ষার জন্য ঢাকায় পাঠানো হলেও শনিবার (৪ এপ্রিল) সকাল পর্যন্ত মাত্র ছয় জনের রিপোর্ট পাওয়া গেছে। তবে কারো মধ্যেই করোনা ভাইরাস পজেটিভ পাওয়া যায়নি।

টাঙ্গাইলের সিভিল সার্জন কার্যালয় সূত্রে জানা যায়, জেলার ১১টি উপজেলায় প্রতিটি ৫টি করে আসনের ১১টি এবং জেলা সদরের ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালে ৫৫টি আসনের একটি মোট ১২টি আইসোলেশন সেণ্টার খোলা হয়েছে।

এরমধ্যে ধনবাড়ীতে একজন এবং মধুপুর উপজেলা স্বাস্থ কমপ্লেক্সে স্থাপনকৃত আইসোলেশন সেন্টারে দুইজন রোগী চিকিৎসা নিচ্ছেন। অন্য ১০টি আইসোলেশন সেন্টারে এখনো পর্যন্ত কোন রোগী ভর্তি হননি।

সূত্রমতে, ইতোমধ্যে সন্দেহজনক ২২ জনের নমুনা পরীক্ষার জন্য ঢাকায় পাঠানো হয়েছে। এরমধ্যে ৬ জনের রিপোর্টে কোভিড-১৯ পজেটিভ আসেনি। সুতরাং টাঙ্গাইলে করোনা ভাইরাসের রোগী নেই বলা যেতে পারে।

এছাড়া মধুপুর উপজেলার মহিষমারা ইউনিয়নের টেক্কার বাজার গ্রামের পান বিক্রেতা হবিবুর রহমান হবি (৩৫) করোনার উপসর্গ নিয়ে মৃত্যুবরণ করেন।

টাঙ্গাইলের সিভিল সার্জন ডা. মো. ওয়াহিদুজ্জামান জানান , জেলায় ১১০ আসনের ১২টি আইসোলেশন সেন্টার স্থাপন করা হয়েছে। এ পর্যন্ত জেলায় কোভিড-১৯(নভেল করোনা ভাইরাস) পজেটিভ কোন রোগী শনাক্ত হয়নি।

তিনি আরো বলেন, এ পর্যন্ত সরকারি-বেসরকারি পর্যায়ে এক হাজার ৬৬২টি পিপিই পাওয়া গেছে। পিপিই সবাইকে দেওয়া হবেনা, শুধুমাত্র যারা করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত রোগীর চিকিৎসায় নিয়েজিত থাকবেন তাদেরকেই দেওয়া হবে।

খবরটি শেয়ার করুন..

Comments are closed.




© সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত । এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি ।
নির্মান ও ডিজাইন: সুশান্ত কুমার মোবাইল: 01748962840