সংবাদ শিরোনাম:
টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসা উপকরণ থেকে বঞ্চিত রোগীরা

টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসা উপকরণ থেকে বঞ্চিত রোগীরা

প্রতিদিন প্রতিবেদক : টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালের ডায়রিয়া ওয়ার্ডে চিকিৎসা উপকরণ থেকে বঞ্চিত হচ্ছেন রোগীরা। এক সপ্তাহ যাবৎ ডায়রিয়া ওয়ার্ডে ভর্তি হওয়া রোগীরা কলেরা স্যালাইন সহ সকল প্রকার উপকরণ বাহির থেকে কিনে এনে চিকিৎসা সেবা চালাচ্ছেন।

যে কারণে ডায়রিয়া ওয়ার্ডে চিকিৎসা সেবা প্রায় বন্ধের উপক্রম। তবে বিপাকে পরেছে দারিদ্র রোগীরা। এর মধ্যে অনেক রোগী অন্যত্র চিকিৎসার জন্য সরকারী হাসপাতাল ছেড়ে বেসরকারী হাসপাতালে ভর্তি হচ্ছেন।

এক সপ্তাহে ডায়রিয়া ওয়ার্ডে চিকিৎসা উপকরণ নেই বিষয়টি অবগত নন বলে জানান জেনারেল হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক নারায়ন চন্দ্র সাহা। জানা যায়, টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালে প্রতিদিনই ৩০ থেকে ৪০ জন ডায়রিয়া রোগী ভর্তি হচ্ছেন।

ভর্তি হওয়ার পর পরই তাদের গুনতে হয় সরকারি চিকিৎসা উপকরণের জন্য টাকা। রোগী বেডে রেখে দৌড়াতে হচ্ছে ঔষুধের পিছে। কর্তব্যরত সেবীকাদের স্লিপ নিয়ে সরকারি ঔষুধ কিনতে হচ্ছে বাহির থেকে। ঔষুধ কিনতে না পেরে অনেক দারিদ্র রোগী অসহায় অবস্থায় রোগী নিয়ে বাড়ী ফিরে যাচ্ছেন।

এর মধ্যে অনেক রোগী সরকারী হাসপাতাল ছেড়ে বেসরকারী হাসপাতালে গিয়ে চিকিৎসা নিচ্ছেন। এক সপ্তাহ যাবৎ টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালের ডায়রিয়া ওয়ার্ডে চলছে চিকিৎসা উপকরণ ব্যাতিত চিকিৎসা সেবা।

আর এ সুযোগ কাজে লাগিয়ে প্রতারণা ও মোটা অংকের টাকা হাতিয়ে নিচ্ছেন স্থানীয় দালাল, ঔষুধ ব্যবসায়ী ও বেসরকারী হাসপাতালগুলো। হাসপাতালের ডায়রিয়া ওয়ার্ডের কর্তব্যরত সেবিকা ও চিকিৎসকরা জানান, গত ৭-৮দিন যাবৎ হাসপাতালে কলেরা স্যালাইন সহ বেশ কিছু চিকিৎসা উপকরণ একেবারেই নেই।

বিষয়টি আমরা রোগীদের বলেও বোঝাতে পারছি না। যে কারণে রোগীদের চিকিৎসা সেবা ব্যাহত হচ্ছে। অনেক সময় রোগীর স্বজনদের সাথে আমাদের কথা-কাঁটা-কাঁটি হচ্ছে এবং তারা উত্তেজিত হয়ে মারমূখি অবস্থান নিচ্ছেন বলে জানান ডায়রিয়া বিভাগের স্টোর কিপার শাহজালাল।

ডায়রিয়া রোগীর সাথে আসা সদরের তোফাজ্জল, মুকুল, আরিফ, সাজেদুল, মমিন, সুমাইয়া, চাঁদনী, কালু, শফিক, নাদির, ছাদেক, আছিয়া, কুলসুম সহ অন্যান্যরা জানান, শুধু ভর্তি ছাড়া সবই বাহির থেকে কিনে আনা হয়েছে।

নার্সদের কাছে গেলে বলেন কোন ঔষুধ নাই। ডাক্তাররা শুধু প্রেসক্রিপশন হাতে ধরিয়ে দিয়েই চলে যান। সরকারী হাসপাতালে সরকারী কোন চিকিৎসা পাচ্ছিনা।

টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক নারায়ন চন্দ্র সাহা জানান, ডায়রিয়া বিভাগে চিকিৎসা উপকরণ নেই বিষয়টি আমি অবগত ছিলাম না। অভিযোগ পাওয়ার পর তিনি দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্ম কর্তাদের দ্রুত সমস্য সমাধান করার জন্য নির্দেশ দেন। তবে অতি দ্রুত সংকট সমাধান হবে বলে তিনি জানান।

খবরটি শেয়ার করুন..

Comments are closed.




© সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত । এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি ।
নির্মান ও ডিজাইন: সুশান্ত কুমার মোবাইল: 01748962840