দেলদুয়ার যুবলীগের কমিটি নিয়ে চলছে নানা টালবাহানা

দেলদুয়ার যুবলীগের কমিটি নিয়ে চলছে নানা টালবাহানা

প্রতিদিন প্রতিবেদক : দেলদুয়ার উপজেলা যুবলীগের কমিটি নিয়ে চলছে নানা টালবাহানা। প্রতিষ্ঠার পর দীর্ঘ ৩০ বছরের গঠন করা হয়নি পূর্ণাঙ্গ কমিটি। যে কারণে ক্রমশ উত্তেজনা বাড়ছে নেতা-কর্মীদের মাঝে। উত্তেজনা থেকে ঘটতে পারে বড় ধরনের সংঘর্ষের ঘটনা এমটাই মনে করছেন স্থানীয় আওয়ামীলীগ নেতা-কর্মীরা।

তবে বিষয়টিতে স্থানীয় সংসদের হস্তক্ষেপ রয়েছে বলে জানান বর্তমান যুবলীগের আহবায়ক কমিটির নেতা-কর্মীরা।

সরোজমিনে গিয়ে জানা যায়, ১৯৯০ সালের দিকে প্রথম আহবায়ক কমিটি নিয়ে দেলদুয়ার উপজেলা যুবলীগ প্রতিষ্ঠিত হয়। এর পর অদ্যবদি আহবায়ক কমিটি দিয়েই চলছে উপজেলা যুবলীগ।

তবে এর মাঝে নেতা-কর্মী পরিবর্তন করা হয়েছে। দীর্ঘ ৩০ বছর পেরিয়ে গেলেও কেন যুবলীগের পূর্ণাঙ্গ কমিটি গঠন করা হচ্ছে না সেটাই প্রশ্ন উপজেলা বাসীর।

এরপর গত ৫ জুলাই কেন্দ্রীয় আওয়ামী যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক বদিউল আলম বদি যুবলীগের বিশেষ বর্ধিত সভায় দেলদুয়ার উপজেলা যুবলীগের সম্মেলনের তারিখ ঘোষণা করেন।

সে সময় উপস্থিত ছিলেন জেলা যুবলীগের সভাপতি রেজাউর রহমান চঞ্চল, সাধারণ সম্পাদক ফারুক হোসেন মানিক, উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি খ. ফজলুল হক, সাধারণ সম্পাদক আলহাজ লায়ন এম. শিবলী সাদিকসহস উপজেলা আওয়ামী লীগ ও যুবলীগের সকল স্তরের নেতাকর্মীবৃন্দ।

অনিবার্য কারণে সেই তারিখ পরিবর্তন করে উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক, যুবলীগের সম্মেলনের দায়িত্বপ্রাপ্ত আওয়ামী লীগ নেতৃবৃন্দসহ ও জেলা যুবলীগের সমন্বয়ে সেপ্টেম্বর মাসের ৯ তারিখে, চলতি মাসের ১৪ তারিখে সম্মেলনের চুড়ান্ত তারিখ ঘোষণা করা হয়েছিল।

সম্মেলনকে কেন্দ্র করে যুবলীগের নেতা কর্মীদের মাঝে ব্যাপক উৎসাহ উদ্দিপনার সৃষ্টি হয়। পদ প্রত্যাশিদের পোস্টার ফেস্টুনে ছেয়ে যায় উপজেলা। চায়ের দোকান থেকে শুরু করে বিভিন্ন হাট-বাজার, পাড়া-মহল্লায় চলে আলোচনা সমালোচনার ঝড়।

এহেন পরিস্থিতিতে সম্মেলনের ঠিক দু’দিন আগে কেন্দ্রীয় যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক নির্বাচন স্থগিত ঘোষণা করেন। হতাশায় পড়ে যায় যুবলীগের নেতা কর্মী ও সমর্থকরা।

দেলদুয়ার উপজেলা আওয়ামী যুবলীগের যুগ্ম-আহবায় হামিদুল ইসলাম মজনু জানান, আমরা যারা আওয়ামী পরিবারের লোক, আমরা অবশ্যই নৌকার পক্ষে, আর নৌকার পক্ষে মানেই আমরা সবাই আহসানুল ইসলাম টিটুর লোক। এক্ষেত্রে এমপি সাহেবের এমন আচরণ মোটেই কাম্য নয়।


সাধারণ কাউন্সিলর কিংবা ভোটারের চাওয়া গণতান্ত্রিক প্রক্রিয়ায় আমরা একজন সৎ ও যোগ্য লোককে বের করে আনতে চাই, যার কোন মাদকের সাথে সম্পৃক্ততা নেই। যিনি সঠিক ভাবে দেলদুয়ার উপজেলা যুবলীগকে সংগঠিত করে আগামী দিনে শেখ হাসিনার হাতকে শক্তিশালী করবেন।

দেলদুয়ার উপজেলা আওয়ামী যুবলীগের সিনিয়র যুগ্ন আহবায়ক মোস্তফা কামাল নান্নু জানান, দীর্ঘ দিন পর যুবলীগের সম্মেলনকে কেন্দ্র করে উপজেলা সকল নেতাকর্মীদের মাঝে আনন্দ উৎসবের সৃষ্টি হয়েছিল।

কিন্তু আকশ্যিক সম্মেলন স্থগিত করায় নেতা-কর্মীদের মধ্যে হতাশা ও শংঙ্কা বিরাজ করছে। আমি আশা রাখি নেতা-কর্মীরা যোগ্যতার ভিত্তিতে সঠিক ও সৎ নেতৃত্ব বের করে আনবেন।

উপজেলা যুবলীগের আহবায়ক ও ভাইস চেয়ারম্যান এহসানুল হক সুমন জানান, কেন্দ্রীয় যুবলীগের নিদেশের্ ১৪ অক্টোবর দেলদুয়ার উপজেলা যুবলীগের সম্মেলন স্থগিত করা হয়েছে।

জেলা যুবলীগের সভাপতি রেজাউর রহমান চঞ্চল জানান, দেলদুয়ার যুবলীগের সম্মেলন যতা সময়ে করার বিষয়ে আমাদের প্রস্তুতি ছিল। কিন্তু আগামী ২১ নভেম্বর কেন্দ্রীয় যুবলীগের সম্মেলন হবে বলে জানিয়ে জেলা পর্যায়ের সকল সম্মেলন স্থগিত করার ঘোষনা করেন কেন্দ্রীয় যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক।

তার ঘোষনা অনুযায়ী দেলদুয়ার উপজেলা যুবলীগের সম্মেলন স্থগিত করা হয়েছে। তবে আগামী ২৩ নভেম্বরের পর যে কোন দিন আমরা দেলদুয়ার উপজেলা যুবলীগের সম্মেলন করবো।

খবরটি শেয়ার করুন..

Comments are closed.




© সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত । এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি ।
নির্মান ও ডিজাইন: সুশান্ত কুমার মোবাইল: 01748962840