সংবাদ শিরোনাম:
মধুপুরে বাসে অতিরিক্ত ভাড়া আদায়ের দায়ে জরিমানা আওয়ামী লীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে মাভাবিপ্রবি পরিবারের শ্রদ্ধা নিবেদন টাঙ্গাইলে আওয়ামীলীগের প্লাটিনাম জয়ন্তী উদযাপিত বাসাইলে বজ্রাঘাতে কৃষকের মৃত্যু অচিরেই দেখা যাবে বিএনপি খণ্ডবিখণ্ড হয়ে পড়েছে: সাবেক কৃষিমন্ত্রী টাঙ্গাইলে প্রাইভেটকার-মাহিন্দ্রার সংঘর্ষে নিহত ২ স্মার্ট বাংলাদেশ গড়তে শিক্ষার পাশাপাশি খেলাধুলার বিকল্প নেই: শিক্ষা প্রতিমন্ত্রী টাঙ্গাইলে ২হাজার ৮২টি ঈদুল আজহার জামাতের মাঠ প্রস্তুত টাঙ্গাইলে গরুর হাটের নিরাপত্তা ও মহাসড়কের যানজট নিরসনে কাজ করছে RAB টাঙ্গাইলে ১০৮ বোতল বিদেশী মদসহ এক মাদক ব্যবসায়ী আটক
মির্জাপুরে তীব্র পানির সংকট নিরসনে শহরের ব্যস্ততম চারটি স্থানে এমপি শুভর নলকুপ স্থানের উদ্যোগ

মির্জাপুরে তীব্র পানির সংকট নিরসনে শহরের ব্যস্ততম চারটি স্থানে এমপি শুভর নলকুপ স্থানের উদ্যোগ

প্রতিদিন প্রতিবেদক, মির্জাপুর: টাঙ্গাইলের মির্জাপুরে তীব্র দাবদাহে খাবার পানির সংকট দেখা দেয়ায় পৌর সদরের জনগুরুত্বপূর্ন চারটি স্থানে জরুরী ভিত্তিতে গভীর নলকুপ স্থানের উদ্যোগ নিয়েছেন টাঙ্গাইল-৭ মির্জাপুর আসনের সংসদ সদস্য খান আহমেদ শুভ।

শনিবার দুপুরে তিনি শহরের ব্যস্ততম কলেজ রোড, কালীবাড়ি রোড়, বাওয়ার কুমারজানী রোড, কাঁচাবাজার
রোড পরিদর্শন করে জরুরী ভিত্তিতে এসব নলকুপ স্থাপনের উদ্যোগ গ্রহণ করেন। এ সময় উপজেলা জনস্বাস্থ্য প্রকৌশলী বাহার উদ্দিন, উপজেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি মোজাহিদুল ইসলাম মনির, যুগ্ম সম্পাদক মাজহারুল ইসলাম শিপলু, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক শহীদুর রহমান লাবু, স্বাস্থ্য বিষয়ক সম্পাদক মাসুদ রানা মাসুম, মির্জাপুর প্রেসক্লাবের সভাপতি শামসুল ইসলাম সহিদ, সাধারণ সম্পাদক হারুন অর রশিদ সিদ্দিকী প্রমুখ তাঁর সঙ্গে ছিলেন।

উপজেলা জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল বিভাগের তথ্য অনুযায়ী, উপজেলা সদরের ব্যবসায়ী ও শহরের আসা লোকজনের সুপেয় পানির চাহিদার কথা চিন্ত করে গত চার দশকেরও বেশি সময় আগে শহরের ব্যস্ততম কলেজ রোড, কালীবাড়ি রোড়, বাওয়ার কুমারজানী রোড, কাঁচাবাজার রোডে চারটি অগভীর নলকুপ স্থাপন করা হয়। এসব অগভীর নলকুপ থেকে বাজারের ব্যবসায়ীরা ও শহরে আসা লোকজন তাদের সুপেয় পানির চাহিদা পুরন করে আসছিল। কিন্ত চলতি বছরের তীব্র দাবদাহে উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় সুপেয় পানির স্তর গভীরে নেমে যাওয়ায় এসব আর নলকুপে পানি উঠছে না।

সূত্র জানায়, তীব্র দাবদাহসহ পরিবেশ বিপর্যয়ের কারণে প্রতি বছর পানির স্তর ১০ থেকে ১১ ফুট নিচে নামছে। ১০ বছর আগেও এ উপজেলায় ৬০ থেকে ৭০ ফুটের মধ্যে ভূ-গর্ভস্থ সুপেয় পানির স্তর পাওয়া যেত। অথচ এখন পানির স্তর ৩০০ ফুটেরও বেশি গভীরে
নেমে গেছে।

এদিকে সারাদেশের ন্যায় চলতি বছর অতিরিক্ত খরায় পুড়ছে মির্জাপুর উপজেলাও। পানির উৎস না থাকা এবং বৃষ্টি না হওয়ায় বিপাকে পড়েছেন উপজেলার সর্বস্তরের মানুষ। পৌর এলাকার সর্বত্রও একই অবস্থা দেখা দিয়েছে। মির্জাপুর বাজারের কলেজ রোডের ব্যবসায়ী মুক্তা স্টুডিও মালিক শামীম আল মামুন ও মোবারক আর্ট এন্ড প্রিন্টিং প্রেসের মালিক খন্দকার মোবারক হোসেন জানান, গত চার দশকের বেশি সময় ধরে তারা এই রোডে ব্যবসা করছেন। কলেজ রোডে প্রেসক্লাবের সামনে থাকা অগভীর নলকুপ থেকে সারা বছর তাদের সুপেয় পানির চাহিদা পুরন করে থাকেন। কিন্ত চলতি বছরের তীব্র খরায় এই টিউবওয়েলে আর পানি উঠছে না।

একই কথা বলেন, কালী বাড়ি রোডের ব্যবসায়ী ওয়াজ উদ্দিন সিকদার, শম্ভু কর্মকার, সমীর বণিকসহ অনেক ব্যবসায়ী। তারা বলেন, রোডের পাশে থাকা অগভীর এসব নলকুপের পানি ব্যবসায়ীসহ বাজারে আসা লোকজন পান করার পাশাপাশি গোসল ও ব্যবসার প্রয়োজনে ব্যবহার করে থাকেন। কিন্ত তীব্র দাবদাহে পানির স্তর নিচে নেমে যাওয়ায় ১৫ থেকে ১৬ বার টিউবওয়েল চাপার পরেও মিলছে না এক গ্লাস পানি। তাই পানি সংকটের তাদের ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে।

এদিকে উপজেলা সদরের ব্যস্ততম এলাকার ব্যবসায়ী ও জনসাধারণের পানির সমস্যার কথা জানতে পেরে স্থানীয় সংসদ সদস্য খান আহমেদ শুভ দুপুরে ওই এলাকা পরিদর্শনে যান। এসময় তিনি ব্যবসায়ী ও জনগণের সঙ্গে কথা বলে ব্যবস্তম এসব এলাকায় তাৎক্ষনিক চারটি গভীর নলকুপ স্থানের নির্দেশ প্রদান করেন। উপজেলা জনস্বাস্থ্য প্রকৌশলী বাহার উদ্দিন জানান, মাননীয় সংসদ সদস্য খান আহমেদ শুভ’র নির্দেশে আগামীকাল রোববার সকাল থেকে তিনি শহরের ব্যস্ততম চারটি রোডে
চারটি স্থানে টিউবওয়েল স্থানের কাজ শুরু করবেন।

সংসদ সদস্য খান আহমেদ শুভ’র সঙ্গে কথা হলে তিনি বলেন, শহরের ব্যবসায়ী ও
জনসাধারণের পানি সংকটের কথা তিনি জানতে পেরে ওই এলাকায় পরিদর্শন করে জরুরী
ভিত্তিতে চারটি নলকুপ স্থাপনের নির্দশ প্রদান করেছেন।

খবরটি শেয়ার করুন..

Comments are closed.




© সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত । এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি ।
নির্মান ও ডিজাইন: সুশান্ত কুমার মোবাইল: 01748962840