সংবাদ শিরোনাম:
টাঙ্গাইল প্রেসক্লাবের পাঠাগারে বেলা’র বই প্রদান টাঙ্গাইলে সাংবাদিকদের মাঝে প্রধানমন্ত্রীর ঈদ উপহার বিতরণ ঢাকা-টাঙ্গাইল-বঙ্গবন্ধু সেতু মহাসড়কে সকালে যানজট বিকেলে স্বাভাবিক ঢাকা-টাঙ্গাইল-বঙ্গবন্ধু সেতু মহাসড়কের এলেঙ্গা থেকে সেতু পূর্ব পাড় পর্যন্ত বেড়েছে যানবাহনের চাপ, চলছে ধীর গতিতে সখীপুরে জেলা প্রশাসকের অর্থায়নে আশ্রয়ণ প্রকল্পে বৈদ্যতিক পাখা বিতরণ মধুপুরে মাদক দ্রব্যের অপব্যবহার রোধে কর্মশালা মেয়াদোত্তীর্ণ ভ্যাকসিনে ১৪০০ হাঁসের মৃত্যু, অভিযোগ খামারীর ইয়াবাসহ মাদক কারবারিকে আটক করেছে র‌্যাব প্রধানমন্ত্রীকে ধন্যবাদ জানিয়ে আনন্দ শোভাযাত্রা গোপালপুরে বিদ্যুৎপৃষ্টে যুবক নিহত
শেখ কামাল আইটি ট্রেনিং এন্ড ইনকিউবেশন সেন্টার স্থানান্তরের প্রতিবাদে ঘাটাইলে প্রতীকী অনশন 

শেখ কামাল আইটি ট্রেনিং এন্ড ইনকিউবেশন সেন্টার স্থানান্তরের প্রতিবাদে ঘাটাইলে প্রতীকী অনশন 

প্রতিদিন প্রতিবেদক: শেখ কামাল আইটি ট্রেনিং এন্ড ইনকিউবেশন সেন্টার ঘাটাইল উপজেলার পরিবর্তে মধুপুরে স্থানান্তরের সিদ্ধান্তের প্রতিবাদে সোমবার প্রতীক অনশন ও প্রতিবাদ সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

শেখ কামাল আইটি ট্রেনিং এন্ড ইনকিউবেশন সেন্টার রক্ষা কমিটির উদ্যোগে উপজেলার গৌরিশ^র গ্রামে প্রস্তাবিত আইটি পার্কের নামে বরাদ্দকৃত জমিতে এ কর্মসূচি পালন করা হয়।

সকাল ১০ টা থেকে দুপুর দুইটা পর্যন্ত প্রতীক অনশন চলাকালে অনুষ্ঠিত প্রতিবাদ সভায় সভাপতিত্ব করেন সন্ধানপুর ইউপি চেয়ারম্যান শহিদুল ইসলাম। বক্তব্য রাখেন ঘাটাইলে শেখ কামাল আইটি ট্রেনিং এন্ড ইনকিউবেশন সেন্টার রক্ষা কমিটির সদস্য সচিব আতিকুর রহমান, দেওপাড়া ইউপি চেয়ারম্যান রুহুল আমিন, দিগড় ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান আবুল কালাম আজাদ, স্থানীয় ইউপি সদস্য আব্দুল কাদের খান, আজমত আলী প্রমুখ।

বক্তারা প্রস্তাবিত এবং দলিল সম্পাদিত নির্ধারিত স্থানেই শেখ কামাল আইটি ট্রেনিং এন্ড ইনকিউবেশন সেন্টার স্থাপনের দাবি জানান। অনশন চলাকালে গণসংগীত পরিবেশন করেন উপজেলার বিভিন্ন সাংস্কৃতিক সংগঠনের কর্মীরা। দুপুরে পানি পান করিয়ে অনশন ভাঙান ঘাটাইল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আজহারুল ইসলাম সরকার।

প্রসঙ্গত, ২০১৭ সালের ৪ ফেব্রুয়ারি হাই-টেক পার্কের অনুকূলে ১২ একর ৭৭ শতাংশ জমি বিনামূল্যে বরাদ্দ প্রদানের জন্য ঘাটাইল উপজেলা প্রশাসনকে ব্যবস্থা গ্রহণ করতে চিঠি দেয় ডাক ও টেলিযোগাযোগ ও তথ্য প্রযুক্তি মন্ত্রনালয়। ২০১৮ সালের ৩ নভেম্বর ঘাটাইলে শেখ কামাল আইটি ট্রেনিং এন্ড ইনকিউবেশন সেন্টারের প্রশাসনিক অনুমোদন পাওয়া যায়। ২০১৯ সালের ২৫ জুন গৌরিশ^র মৌজার ১নং খাস খতিয়ানে অকৃষি ১২দশমিক ৭৭ একর জমি টাঙ্গাইল জেলায় আইটি ট্রেনিং এন্ড ইনকিউবেশণ সেন্টার/হাইটেক পার্ক/আইটি ভিলেজ/সফটওয়ার টেকনিক্যাল পার্ক স্থাপনের জন্য নির্বাচন করা হয়। ভূমি মন্ত্রনালয় প্রতীকী মূল্য এক লাখ এক হাজার টাকা নির্ধারণ করে। সেই টাকা ওই বছর ২৯ ডিসেম্বর ট্রেজারি চালানের মাধ্যমে পরিশোধ করা হয়। ২০২১ সালের ১৪ ফেব্রুয়ারি সরকারের পক্ষে জেলা প্রশাসক দীর্ঘ মেয়াদি লিজ দলিল সম্পাদন ও রেজিস্ট্রির মাধ্যমে ওই জমি ডাক, টেলিফোন ও তথ্য প্রযুক্তি মন্ত্রানালয়ের তথ্য ও যোগাযোগ বিভাগের বাংলাদেশ হাইটেক পার্কের ব্যবস্থাপনা পরিচালন বরাবর হস্তান্তর করেন।

ঘাটাইলে শেখ কামাল আইটি ট্রেনিং এন্ড ইনকিউবেশন সেন্টার রক্ষা কমিটির সদস্য সচিব আতিকুর রহমান জানান, একনেকের সভায় অর্থ ছাড় দেওয়া হয়েছে ঘাটাইলের পার্শ্ববর্তী উপজেলা মধুপুরের নামে। শুরু থেকেই এর প্রতিবাদ করে আসছে ঘাটাইলবাসি। প্রতিবাদ জানিয়ে এরইমধ্যে করা হয়েছে সংবাদ সম্মেলন, ১৫ কিলোমিটার এলাকাজুড়ে করা হয় মানববন্ধন। সেখানে সকল শ্রেণি পেশার হাজার হাজার মানুষ তাদের প্রাণের দাবীতে মানববন্ধনে অংশগ্রহণ করেন। তিনি অভিযোগ করেন, একজন প্রভাবশালী মন্ত্রী এই পার্কটি ঘাটাইল থেকে মধুপুরে নিয়ে যাচ্ছেন।

খবরটি শেয়ার করুন..

Comments are closed.




© সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত । এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি ।
নির্মান ও ডিজাইন: সুশান্ত কুমার মোবাইল: 01748962840