৮ম শ্রেণীর ছাত্রীকে ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগে প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে মামলা 

৮ম শ্রেণীর ছাত্রীকে ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগে প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে মামলা 

প্রতিদিন প্রতিবেদক,গোপালপুর: ৮ম শ্রেণীর ১৩বছর বয়সী এক ছাত্রীকে ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগে, টাঙ্গাইলের গোপালপুর উপজেলার মাহমুদপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো. মিজানুর রহমান(৪৫)কে আসামি করে গতকাল মামলা দায়ের করেছেন ঐ ছাত্রীর বাবা।  ঐ শিক্ষক জামালপুর জেলার সরিষাবাড়ী উপজেলার কান্দারপাড়া গ্রামের মজিবর রহমানের সন্তান।

ছাত্রীর বাবার অভিযোগ, দীর্ঘদিন ধরে বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো. মিজানুর রহমান আমার মেয়েকে বিয়ের প্রলোভনে কুপ্রস্তাব দিয়ে আসছিলেন। এজন্য আমার মেয়ে স্কুলে যেতে চাইতো না। গত মে মাসে স্কুল ছুটির পর, আমার মেয়েকে জোর করে শ্রেণীকক্ষে নিয়ে বিদ্যালয়ের ড্রেস খুলে স্পর্শকাতর স্থানে হাত দেয় এবং ধর্ষণের অপচেষ্টা করে। এসময় আমার মেয়ে ডাক চিৎকার করলে, এ ঘটনা কাউকে বললে ক্ষতি করা হবে ভয়ভীতি দেখিয়ে চলে যায় ঐ শিক্ষক। বিষয়টি আমার শ্বাশুড়ির মাধ্যমে জানার পর। খোঁজ খবর নিয়ে ঘটনার সত্যতা পেয়ে, ঐ প্রধান শিক্ষকের বিচার চেয়ে থানায় মামলা দায়ের করি। আমি খোঁজ নেয়ার সময় প্রধান শিক্ষক আমাকে আপোষ প্রস্তাব পাঠিয়েছেন।
প্রধান শিক্ষক মো. মিজানুর রহমানের মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে, নিজেকে নির্দোষ দাবি করে বলেন, মামলার বিষয়টি আমি শুনেছি। ২০ বছর যাবৎ আমি শিক্ষকতা করি। আমার মেয়ে কলেজে পড়ে, অষ্টম শ্রেণী পড়ুয়া পুঁচকে মেয়ের সাথে এমন ঘটনা আমি চিন্তাই করতে পারি না। ম্যানেজিং কমিটি নিয়ে আমার সাথে কয়েকজনের শত্রুতা সৃষ্টি হয়, এরপর একটার পর একটা চলতেই আছে এটাও চক্রান্ত।
গোপালপুর থানার ওসি ইমদাদুল ইসলাম তৈয়ব বলেন,  এ বিষয়ে গোপালপুর থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা দায়ের হয়েছে। তদন্ত চলছে, আসামি দোষী হলে গ্রেফতার করা হবে।

খবরটি শেয়ার করুন..

Comments are closed.




© সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত । এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি ।
নির্মান ও ডিজাইন: সুশান্ত কুমার মোবাইল: 01748962840