সখিপুরে ইয়াবা দিয়ে ফাঁসানোর সময় মির্জাপুরের তিন পুলিশ সদস্যকে গণধোলাই

সখিপুরে ইয়াবা দিয়ে ফাঁসানোর সময় মির্জাপুরের তিন পুলিশ সদস্যকে গণধোলাই

প্রতিদিন প্রতিবেদক মির্জাপুর : পকেটে ইয়াবা দিয়ে ফাঁসানোর সময় মির্জাপুর থানার বাশতৈল পুলিশ ফাঁড়ির এএসআই রিয়াজুলসহ চার পুলিশ সদস্যকে আটক করে গণধোলাই দিয়েছে স্থানীয় জনতা।

ইতি পূবের্ এএসআই রিয়াজ তার সহযোগীদের নিয়ে মির্জাপুর থানার টান পলাশতলী গ্রামের বাছেদ মিয়ার ছেলে আনোয়ারের নিকট থেকে এক লাখ টাকা হাতিয়ে নিয়েছে বলেও অভিযোগ রয়েছে।

বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় সখিপুর উপজেলার হতিয়া রাজাবড়ির গাবিলার বাজার এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

আটককৃত পুলিশ সদস্যরা হল বাশতৈল পুলিশ ফঁড়ির উপ-পরিদর্শক (এএসআই) রিয়াজুল ইসলাম, কনস্টেবল গোপাল সাহা, রাসেল ও পুলিশের সোর্স হাসান।

জানা গেছে, এএসআই রিয়াজের নেতৃত্বে পুলিশ সদস্যরা গাবিলার বাজারে গিয়ে হতিয়া রাজাবাড়ির ভাতকুড়াচালার ফরহাদ মিয়ার ছেলে বজলুকে পকেটে ইয়াবা দিয়ে ফাঁসানোর চেষ্টা করে।

এসময় স্থানীয় জনতা বিষয়টি টের পেয়ে পুলিশ সদস্যদের আটক করে রাজাবাড়ি আদর্শ বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে নিয়ে যায়।

সেখানে তাদের গণধোলই দিয়ে এক কক্ষে আটকে রাখে। খবর পেয়ে এলাকার শত শত জনতা ঘটনাস্থলে ভীর জমায়। এই খবর পেয়ে সখিপুর এবং মির্জাপুর থানা পুলিশ পরিস্থিতি সামাল দিতে ঘটনাস্থলে রওনা হয়েছেন বলে জানা গেছে।

সখিপুরের বরচনা কলেজের শিক্ষক আব্দুল লতিফ ঘটনার সত্যতা স্বীকার করেছেন।
বুধবার একই কায়দায় এএসআই রিয়াজ তার সহযোগীদের নিয়ে মির্জাপুর থানার টান পলাশতলী গ্রামের বাছেদ মিয়ার ছেলে আনোয়ারের নিকট থেকে এক লাখ টাকা হাতিয়ে নিয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে।

মির্জাপুর থানার অফিসার ইনচার্জ মো. সায়েদুর রহমান ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে জানান এস আই ফয়েজ  উদ্দিনের নেতৃত্বে মির্জাপুর থানার মোবাইল টিম ঘটনাস্থলে দিকে রওনা দিয়েছে।

খবরটি শেয়ার করুন..

Comments are closed.




© সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত । এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি ।
নির্মান ও ডিজাইন: সুশান্ত কুমার মোবাইল: 01748962840