তুচ্ছ ঘটনায় নাগরপুরে এক বৃদ্ধাকে কুপিয়েছে ছেলের শ্বশুড়ের বাহিনী

তুচ্ছ ঘটনায় নাগরপুরে এক বৃদ্ধাকে কুপিয়েছে ছেলের শ্বশুড়ের বাহিনী

প্রতিদিন প্রতিবেদক নাগরপুর : টাঙ্গাইলের নাগরপুরের বেকড়া ইউনিয়নের বেকড়া উত্তর পাড়ায় পূর্ব শত্রুতার জের ধরে রফিকুল ইসলাম (৫৫) নামে এক বৃদ্ধের বাড়িতে হামলায় চালায় তার ছেলের শ্বশুর একই গ্রামের মো. হাবিব মল্লিক ও তার সন্ত্রাসী বাহিনী। এসময় সন্ত্রাসীরা ধারালো অস্ত্র দিয়ে বৃদ্ধকে এলোপাথালী কুপিয়ে মারাত্বক জখম করে ফেলে রেখে যায়।

তাকে আশংকা জনক অবস্থায় টাঙ্গাইল শেখ হাসিনা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভতির্ করা হয়েছে।

রবিবার (১৫ নভেম্বর) রাতে দেশীয় ধারাল অস্ত্র দিয়ে ঐ বাড়ীতে প্রবেশ করে সন্ত্রাসীরা। তাকে প্রথমে নাগরপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ও পরে অবস্থা আশংকাজনক হওয়ায় টাঙ্গাইল শেখ হাসিনা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

স্থানীয় ও পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, বেকড়া উত্তর পাড়া গ্রামের রফিকুল ইসলামের ছেলে প্রেম করে বিয়ে করে একই গ্রামের হাবিব মল্লিকের মেয়েকে। পরে দাম্পত্য কলহের জেরে হাবিব মল্লিকের মেয়ে তার স্বামী ও শ্বশুর বাড়ির লোকজনের বিরুদ্ধে নারী নির্যাতনের অভিযোগ এনে আদালতে মামলা দায়ের করেন।

এরপর থেকে দুই পরিবারের আত্মীয়তার সম্পর্কের অবনতি হয়। রবিবার সন্ধ্যায় বৃদ্ধ রফিকুলের বাড়ির সামনে বেকড়া নূরমোহাম্মদীয়া ফোরকানিয়া মাদ্রাসা মাঠে তালেব খানের ছেলে আশিক ও হাবিব মল্লিকের ছেলে মোস্তাকিন ব্যাডমিন্টন খেলতে গিয়ে ব্যাডমিন্টন কোর্টের খুটি সরানোর মিথ্যা অভিযোগে রফিকুলকে গালাগালি করে।

এ সময় রফিকুল তাদের বলে আমি এই মাদ্রাসার ক্লার্ক আর তোমরা আমাকে গালাগালি করছো। এ সময় উভয় পক্ষের মধ্যে কথা কাটাকাটি হয়। পরে বৃদ্ধ রফিকুল বাড়ি চলে এসে নামাজের প্রস্তুতি নিচ্ছিলেন ঠিক সে সময় হাবিব, আশিক, মোস্তাকিন দেশীয় অস্ত্র নিয়ে বাড়িতে এসে বৃদ্ধ রফিকুলকে এলোপাথারি কিল ঘুষি, মারপিট ও দা দিয়ে কুপিয়ে জখম করে চলে যায়।

নাগরপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো.আনিসুর রহমান জানান, মারামারির বিষয়ে একটি অভিযোগ পেয়েছি। তদন্ত সাপেক্ষে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

খবরটি শেয়ার করুন..

Comments are closed.




© সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত । এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি ।
নির্মান ও ডিজাইন: সুশান্ত কুমার মোবাইল: 01748962840