টাঙ্গাইল শহরের রাস্তায় রাস্তায় নির্মাণ সামগ্রী, বাড়ছে দুর্ভোগ

টাঙ্গাইল শহরের রাস্তায় রাস্তায় নির্মাণ সামগ্রী, বাড়ছে দুর্ভোগ

মাছুদ রানা : দিন যাচ্ছে মানুষের কর্ম ব্যস্ততা বাড়ছে। সেই সাথে সকল অনিয়ম এখন নিয়মে পরিনত হচ্ছে। টাঙ্গাইল শহরের বিভিন্ন রাস্তায় ভবনের নির্মাণ সামগ্রী রেখে কাজ করায় দুর্ভোগে পড়েছেন শহরবাসী। যানজট-দুর্ঘটনাসহ নানা সমস্যায় পড়তে হচ্ছে প্রতিনিয়ত। কোনো নিয়ম নীতির তোয়াক্কা না করেই যত্রতত্র ইট-পাথর-বালু ফেলে রাখছেন ভবন মালিকরা। আইন অনুযায়ী রাস্তায় ইট, বালু ও পাথরসহ বিভিন্ন নির্মাণ সামগ্রী রাখা বেআইনি। কিন্তু তারপরও এ বিধান কেউ মানছেন না। দীর্ঘদিন ধরে এমন অবস্থা চলে আসলেও টাঙ্গাইল পৌরসভা ও পুলিশ প্রশাসনের পক্ষ থেকে কোনো জোর পদক্ষেপ নেয়া হচ্ছে না বলে স্থানীয়দের অভিযোগ।

সরেজমিনে দেখা যায়, শহরের জেলা সদর রোড, ছোট কালিবাড়ী, মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল, মেডিকেল কলেজের পিছনেসহ বিভিন্ন এলাকায় বহুতল ভবন নির্মাণের কাজে ইট, বালু ও পাথর রাস্তার উপর মজুদ করে রেখেছে। ফলে ওই রাস্তায় যান চলাচলে বিঘœ ঘটছে। ওই সব নির্মাণ সামগ্রীর কারণে পথচারীদের নিরাপদ চলাচলের ফুটপাতটিও ব্যবহার করা যাচ্ছে না। নির্মানাধীন ভবনের মালিক ও বিভিন্ন ডেভোলপার কোম্পানীর লোকজন রাস্তা বন্ধ করে নির্মাণ সামগ্রী মজুদ করে রেখেছে।

স্থানীয়রা বলছেন, শহরের বিভিন্ন এলাকার রাস্তা ও ফুটপাত দখল করে দীর্ঘদিন যাবৎ নির্মাণ সামগ্রী রেখে ভবন নির্মাণ করা হচ্ছে। এতে করে রাস্তা দিয়ে চলাচলকারী যানবাহন ও পথচারীরা চরম ভোগান্তির মধ্যে পড়েন। শুধু তাই নয়, মাঝে মধ্যে এ কারণে ফাঁকা রাস্তায় প্রায়াই যানযট লেগেই থাকে। এরপরও নির্মাণাধীন ভবনের মালিকের বিরুদ্ধে কোনো ব্যবস্থা নিতে দেখা যায় না। আগে কম থাকলেও বর্তমান সময়ে পৌরসভার বিভিন্ন এলাকার রাস্তায় রাস্তায় নির্মাণ সামগ্রী বেশি রাখা হচ্ছে। ব্যবস্থা না নেয়ায় এমন ঘটনা ঘটছে বলে অনেকেই অভিযোগ করেছেন।

পথচারী সজল বলেন, অনেকদিন ধরেই রাস্তার উপর পাথর, বালু ও ইট রেখে ভবন নির্মাণ কাজ করছে। এতে সাধারণ পথচারীদের চলাচলে দুর্ভোগ বেড়েছে। রাস্তার উপর নির্মাণ সামগ্রী রাখার পাশাপাশি ফুটপাত বন্ধ করে ভবন নির্মাণ করছে এ নিয়ে কারো কোন মাথা ব্যাথা নেই। এ বিষয়ে আল-আমিন, জয়, হারুনসহ আরো অনেকেই অভিযোগ করে বলেন, কাজের কারনে সব সময় শহরের বিভিন্ন জায়গায় যেতে হয়। ইদানিং শহরের বিভিন্ন রাস্তায় ভবন নির্মাণ সামগ্রী রেখে রাস্তা ছোট করে ফেলেছে। আর এই সকল সামগ্রী রাখার কারনে রাস্তায় বেশির ভাগ অংশে বালু ও পাথর ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকে। এরমধ্য দিয়ে মোটরসাইকেল চালাতে অনেক ভয় লাগে। মাঝে মধ্যেই বালু ও পাথরের কারনে অনেকেই মোটর সাইকেল থেকে পড়ে ব্যাথা পেয়েছেন।

কয়েকজন ব্যাটারি চালিত অটোরিক্সা চালক বলেন, নিরালা মোড় থেকে জেলা সদর রোড হয়ে বটতলা, ডিস্টিক ও বাস্ট্যান্ড পর্যন্ত যাত্রী নিয়ে যাই। রাস্তায় দীর্ঘদিন ধরে ইট, বালু ও পাথর রাখার কারনে চলাচলে অনেক সমস্যা হয়। মাঝে মধ্যে যানজটও তৈরি হয়। তখন বাধ্য হয়ে ভিতরের রাস্তা দিয়ে বটতলা বাজারের সামনে দিয়ে যাই। এতে করে অনেক সময় যাত্রীও কম পাই।

টাঙ্গাইল পৌরসভার মেয়র এস এম সিরাজুল হক বলেন, পৌর এলাকায় রাস্তার উপরে ও ফুটপাত দখল করে নির্মান সামগ্রী রেখে যারা ভবন নির্মান করছে তাদেরকে মালামাল সরিয়ে নেওয়ার জন্য গত কয়েকদিন আগে পৌরসভার পক্ষ থেকে মাইকিং করা হয়েছে। যদি কোন ভবন মালিক ২৪ ঘন্টার মধ্যে রাস্তা ও ফুটপাত থেকে নির্মাান সামগ্রী না সরায় তাহলে পৌরসভার গাড়ি দিয়ে সেই নির্মান সামগ্রী সরিয়ে এনে ময়লা আবর্জনার ভাগারে ডাম্পিং করা হবে।

খবরটি শেয়ার করুন..

Comments are closed.




© সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত । এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি ।
নির্মান ও ডিজাইন: সুশান্ত কুমার মোবাইল: 01748962840