ধনবাড়ীতে শিশু ধর্ষণ

প্রতিদিন প্রতিবেদক ধনবাড়ী: ধনবাড়ী উপজেলার বীরতারায় ৪ বছরের একটি মেয়ে শিশু বাচ্চা ধর্ষণের শিকার হয়েছে। এঘটনায় ধর্ষক কিশোর মোমিন কে গ্রেফতার করে জেল হাজতে পাঠিয়েছে ধনবাড়ী থানা পুলিশ।

ধনবাড়ী থানা পুলিশ সূত্রে জানাযায়, উপজেলার বীরতারা ইউনিয়নের কেন্দুয়া গ্রামে ৪ বছরের একটি মেয়ে শিশু কেন্দুয়া নতুন কুড়ি হাই স্কুলের ৬ষ্ঠ শ্রেণীতে পড়ুয়া ছাত্রের হাতে ধর্ষনের শিকার হয়েছে।

কেন্দুয়া গ্রামের জনৈক এক ব্যাক্তির ৪ বছরের শিশু বাচ্চা (ছদ্দনাম মালা) কে পার্শ্বর্বতী বাঁশনিয়োগী গ্রামের কেন্দুয়া বাজারের ডেকোরেটর ব্যবসায়ী ওয়াজেদ আলীর লম্পট ছোট ছেলে মোমিন(১২) দোকানের পাশের বাসার শিশু বাচ্চা(ছদ্দনাম মালা) (৪) কে চকলেটের লোভ দেখিয়ে বন্ধ থাকা ডেকোরেটরের দোকান ঘরের ভিতরে ডেকে নেন।

পরে ডেকোরেটরের ঘরে বাচ্চাটির মুখ চেপে ধরে বিভিন্ন ধরনের ভয় ভীতি দেখিয়ে ধর্ষণ করে। বাচ্চাটি বাসায় গিয়ে তার মা’র কাছে কান্না করে সমস্ত ঘটনাটি খুলে বলে। পরে শিশু মেয়েটির মা তাকে রক্তাক্ত অবস্থায় দেখতে পায়।

ধর্ষক মোমিনের বাবা ওয়াজেদ আলীর কাছে ঘটনা সম্পর্কে জানতে চাইলে তিনি বলেন তাদের এই ঘটনাটি বীরতারা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি আহমদ আল ফরিদ ও বাঁশনিয়োগী গ্রামের মোজ্জামেল হক মেম্বার তারা দুইজনে মেয়ে পক্ষ কে মামলা তুলে নেওয়া সহ আপোষ মীমাংসা করার চেষ্টা করতেছে বলে তিনি আর কোন কথা বলতে রাজি হননি।

ধনবাড়ী থানার অফিসার ইনচার্জ চান মিয়া ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে জানান, ধর্ষনের শিকার মেয়েটিকে ডাক্তারী পরীক্ষার জন্য টাঙ্গাইল মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। ধর্ষক মোমিন কে গ্রেফতার করে বুধবার দিন টাঙ্গাইল জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে। এঘটনায় শিশু মেয়েটির বাবা শাজাহান আলী বাদী হয়ে (১০ ডিসেম্বর) মঙ্গলবার রাতে ধর্ষক মোমিন কে আসামী করে মামলা দায়ের করেন।

খবরটি শেয়ার করুন..

Comments are closed.




© সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত । এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি ।
নির্মান ও ডিজাইন: সুশান্ত কুমার মোবাইল: 01748962840