নাগরপুর দিঘীতে গোসল করতে গিয়ে শিশুর মৃত্যু

নাগরপুর দিঘীতে গোসল করতে গিয়ে শিশুর মৃত্যু

প্রতিদিন প্রতিবেদক নাগরপুর : টাঙ্গাইলের নাগরপুর উপজেলার উপেন্দ্র সরোবরে (দিঘী) গোসল করতে গিয়ে পানিতে ডুবে শ্রাবণী (১০) নামের এক শিশুর মৃত্যু হয়েছে। সোমবার দুপুরে উপজেলার কাঠুরীতে অবস্থিত দিঘীতে এ ঘটনা ঘটে। সে সদর ইউনিয়নের কাঠুরী গ্রামের মো. হোসেন আলীর মেয়ে।

এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, সোমাবার দুপুরে শ্রাবনী সঙ্গীদের সাথে উপেন্দ্র সরোবরে গোসল করতে এসে নিখোঁজ হয়। সঙ্গীরা তাকে না পেয়ে বাড়ীর লোকজন ও আশ পাশের মানুষকে বিষয়টি জানায়।

এরপর এলাকাবাসী উপেন্দ্র সরোবরের পানিতে শ্রাবনীকে খুঁজতে থাকে। প্রায় ঘন্টা খানেক পর তাকে পানি থেকে তুলে নাগরপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে সেখানে কর্তব্যরত ডাক্তার শিশুটিকে মৃত ঘোষনা করে। এ ঘটনায় এলাকায় শোকের ছায়া নেমে আসে।

নাগরপুর সদর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান একেএম কামরুজ্জামান মনি জানান, ঘটনাটি আমি শুনেছি। আমার গ্রামের হোসেন আলীর মেয়ে শ্রাবনী গোসল করতে গিয়ে পানিতে ডুবে যায়। আমি যতটুকু জেনেছি শিশুটির মৃগী রোগ ছিল।

এরপূর্বে  নিখোঁজের পর নাগরপুরের টেংড়ীপাড়া বিল থেকে আব্দুল আওয়াল (৬০) নামে এক বৃদ্ধের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। রবিবার (৫ জুলাই) রাত ১১টার দিকে তার লাশ উদ্ধার করে এলাকাবাসী। টেংড়ীপাড়া গ্রামের আওয়াল বাড়ির পাশে বিলে জাল দিয়ে মাছ ধরতে গিয়ে সকালে নিখোঁজ হন।

পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, রবিবার (৫ জুলাই) সকালে আওয়াল বাড়ির পাশে টেংড়ীপাড়া বিলে জাল দিয়ে মাছ ধরছিলেন। তবে বিকাল হলেও তিনি বাড়িতে না ফেরায় স্থানীয় লোকজন বিলে অনেক খোঁজ করেন।

রবিবার রাতে ঘটনাস্থলের প্রায় এক কিলোমিটার দূরে আওয়ালের লাশ টেংড়ীপাড়া বিলে ভেসে উঠে।

ভাদ্রা ইউপি চেয়ারম্যান হাবিবুর রহমান হাবিব, বিলে মাছ ধরার সময় হঠাৎ নিখোঁজ হন আওয়াল। পরে এলাকাবাসী বিলে খোজাখুজি করে রাতে তার লাশ উদ্ধার করে। পরিবার থেকে কারোর বিরুদ্ধে কোনো অভিযোগ না থাকায় সোমবার সকালে তার লাশ টেংড়ীপাড়া সামাজিক কবরস্থানে দাফন করা হয়।

খবরটি শেয়ার করুন..

Comments are closed.




© সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত । এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি ।
নির্মান ও ডিজাইন: সুশান্ত কুমার মোবাইল: 01748962840